কাতারে এক মাসে ১৭ জন বাংলাদেশি প্রবাসীর মৃত্যু

এই লেখাটি 57 বার পঠিত

কাতারে এক মাসে ১৭ জন বাংলাদেশি প্রবাসীর মৃত্যু
কাতারে ২০১৮ সালের জুলাই মাসে ১৭ জন প্রবাসী বাংলাদেশির মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে চারজন দুর্ঘটনাবশত নিহত হয়েছেন। বাকি ১৩ প্রবাসীর মৃত্যু হয়েছে স্বাভাবিকভাবে। কাতারস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসের শ্রম শাখা সূত্রে এই তথ্য জানা গেছে।
দুর্ঘটনাবশত যারা নিহত হয়েছেন তাদের মধ্যে রয়েছেন, টাঙ্গাইল জেলার বাসাইল উপজেলার থুপিয়া গ্রামের আব্দুল গনি মিয়ার ছেলে বাচ্চু মিয়া, চাঁদপুর জেলার ফরিদগঞ্জ উপজেলার পুটিয়া গ্রামের অলি মিয়া বেপারীর ছেলে নাসির, ভোলা জেলার বোরহানউদ্দীন উপজেলার মদমদলি গ্রামের আব্দুল মান্নানের ছেলে মো. শরিফ, চট্টগ্রাম জেলার হাটহাজারী উপজেলার উত্তর মেখল গ্রামের জি এম ইলিয়াসের ছেলে জি এম মাহমুদুল হাসান।
দুর্ঘটনাবশত নিহতদের মধ্যে দুজন সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছেন। এই দুজনসহ বাকি দুজনের জন্য ক্ষতিপূরণ আদায়ে দূতাবাস আইনি পদক্ষেপ নিচ্ছে।
স্বাভাবিক অবস্থায় মৃত্যুবরণকারীদের মধ্যে রয়েছেন, ঢাকা জেলার নবাবগঞ্জ থানার কিরনচী গ্রামের নগেন হালদারের ছেলে শ্রীবাসা হালদার, সিলেট জেলার জকিগঞ্জ উপজেলার কোনারগাও গ্রামের আব্দুস সালামের ছেলে মাতাবুর রহমান, কুষ্টিয়া জেলার মিরপুর উপজেলার ধালসা গ্রামের বাহার আলীর ছেলে কাশেদুল হক, বাগেরহাট জেলার মোড়েলঞ্জ উপজেলার কিসমত জমুয়া গ্রামের তোরাপ শেখের ছেলে মান্নান শেখ, চট্টগ্রাম জেলার হাটহাজারী উপজেলার চিকনকান্দী গ্রামের ফাইজ আহমেদ চৌধুরীর ছেলে ইউসুফ চৌুধুরী, কিশোরগঞ্জ জেলার কটিয়াদী উপজেলার গঙ্গাকান্দা গ্রামের মোহাম্মদ চাঁন মিয়ার ছেলে শাহাদাত হোসেন, রাজশাহী জেলার বাগমারা উপজেলার মাদাইমুরি গ্রামের আব্দুর রহমানের ছেলে মোজাম্মেল সরদার, ফরিদপুর জেলার মধুখালী উপজেলার পূর্ব গরাখোলা গ্রামের চাঁদমিয়ার ছেলে হাসান, চাঁদপুর জেলার চারলোতা গ্রামের মৌলানা জয়নাল আবেদীনের ছেলে মাকসুদুল্লাহ, কুমিল্লা জেলার দাউদকান্দি উপজেলার চান্দারাহ গ্রামের জসিমউদ্দীনের ছেরে রুবেল, মাদারীপুর জেলার শিবচর উপজেলার চর বাচামরা গ্রামের করিম মাদবরের ছেলে মোতালেব মাদবর, মেহেরপুর জেলার গাংনী উপজেলার হিন্দা গ্রামের রবিউল ইসলামের ছেলে শারুখ হোসেন, কুমিল্লা জেলার বড়ুরা উপজেলার বাগমারা গ্রামের ওসমান আলীর ছেলে মোতাহার হোসেন।

Aviation News