‘বিমানবন্দরের নিরাপত্তা নিয়ে চাপে আছি’

এই লেখাটি 348 বার পঠিত

menon_6163হযরত শাহজালাল (রহ.) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের নিরাপত্তা ইস্যুতে চাপের মুখে থাকার কথা স্বীকার করলেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন।

মঙ্গলবার (২২ মার্চ) বেলা সাড়ে ১১টায় শাহজালাল বিমানবন্দরে বেসরকারি বিমান সংস্থা নভোএয়ার আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন রাশেদ খান মেনন।

এ সময় মন্ত্রী বলেন, ‘বিমানবন্দরের নিরাপত্তা নিয়ে চাপের মুখে আছি। তবে এ সমস্যা নিরসনে যতো শিগগিরই সম্ভব ব্যবস্থা নিয়েছি। আশা করছি তাড়াতাড়ি এ সমস্যার সমাধান হবে।

তিনি অারও বলেন, যুক্তরাজ্য বাংলাদেশ থেকে সরাসরি কার্গো যাতায়াতের উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে। যদি তারা রাজনৈতিকভাবে এ নিষেধাজ্ঞা আরোপ না করে থাকে তবে আশা করছি খুব অল্প সময়ের মধ্যেই এ নিষেধাজ্ঞা উঠে যাবে। আজ থেকে বিমানবন্দরের নিরাপত্তার দায়িত্ব নিয়েছে যুক্তরাজ্যভিত্তিক প্রতিষ্ঠান রেডলাইন।

এ সময় শাহজালাল বিমানবন্দরে বেসরকারি এয়ারলাইন্সগুলোর হ্যাঙ্গার সুবিধা বৃদ্ধির দাবির প্রতি একাত্মতা প্রকাশ করে রাশেদ খান মেনন বলেন, আমাদের এয়ারলাইন্সগুলো বারবার হ্যাঙ্গার সুবিধা বৃদ্ধির কথা বলেছে। বেবিচকের নতুন চেয়ারম্যানের কাছে আমাদের অনুরোধ থাকবে যাতে হ্যাঙ্গার সুবিধা বৃদ্ধি করা হয়। এক সময় বারবার বলা হতো অভ্যন্তরীণ ক্ষেত্রে ফ্লাইট পরিচালনা লাভজনক নয়। আমি দায়িত্ব পাওয়ার পরপরই অভ্যন্তরীণ রুটে বিমান চলাচল শুরু করার বিষয়ে জোর দিয়েছি।

বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) সাবেক চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল এম সানাউল হক বলেন, বিনিয়োগ ও নিরাপত্তাই এয়ারলাইন্স ব্যবসায়ের সফলতার চাবিকাঠি। যে কোনো এয়ারলাইন্সকে বিনিয়োগ করার সময় অবশ্যই নিরাপত্তাকে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিয়ে কাজ করতে হবে।

এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন নভোএয়ারের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মফিজুর রহমান।

Aviation News