মাঝ আকাশে বড় দুর্ঘটনা এড়াল ইন্ডিগোর দুই বিমান

এই লেখাটি 28 বার পঠিত

কয়েক মুহূর্তের ফারাক। মাঝ আকাশে একটি বিমানের প্রায় কান ঘেঁষে বেরিয়ে গেল উলটোদিক থেকে আসা আর একটি বিমান। মাঝে মাত্র দু’শো ফুটের দূরত্ব। মাঝ আকাশে যা কয়েক চুল বললেও কম বলা হয়। কারণ সেখানে বিমানের যে গতি থাকে, তাতে একটু এদিক-ওদিক হলেই ভয়ানক মুখোমুখি সংঘর্ষ হতে পারত দু’টি যাত্রীবাহী বিমানের।

দু’টি বিমানই বেসরকারি সংস্থা ইন্ডিগোর। একটি যাচ্ছিল কোয়েম্বাটোর থেকে হায়দরাবাদে। অন্যটি বেঙ্গালুরু থেকে কোচির পথে। একটিতে ১৬২ জন যাত্রী ছিল। অন্যটিকে ১৬৬ জন। বেঙ্গালুরুর আকাশেই মুখোমুখি সংঘর্ষ এড়ায় দুই বিমান। সংঘর্ষ হলে বেঘোরে মারা যেতেন কমপক্ষে ৩৩০ জন। ঠিক এমন ঘটনাই ঘটেছিল আজ থেকে ২২ বছর আগে হরিয়ানার চারখি দাদরি গ্রামে। মাছ আকাশে দুই বিমানের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। সেই দুর্ঘটনায় বাঁচানো যায়নি একজন যাত্রীকেও। প্রাণ গিয়েছিল ৩৪৯ জন যাত্রীর। মঙ্গলবারের এই ঘটনাতেও বরাত জোরে বেঁচে গেল কয়েকশো প্রাণ। ট্রাফিক কলিশন অ্যাভয়ডেন্স সিস্টেম (টিসিএএস) এর অ্যালার্ম বাজতেই সতর্ক হন দুই বিমানের চালক। শেষমুহূর্তের তৎপরতায় বেঁচে যায় প্রায় তিনশো যাত্রী ।

বিমান সংস্থা সূত্রে জানানো হয়েছে, দু’টি বিমানের মাঝে উপর-নিচ দূরত্ব ছিল প্রায় ২০০ ফুট। এই ঘটনায় বিমান দুর্ঘটনা অনুসন্ধান পর্ষদ (এএআইবি) তদন্ত শুরু করে দিয়েছে। কীভাবে একই সময়ে একই সংস্থার দু’টি বিমান এক আকাশে মুখোমুখি হল? তাতে দোষী কারা? সেসব নিয়ে তদন্ত চলছে। এ বছরের শুরুতেই মুম্বইয়ের আকাশে মুখোমুখি এসে পড়েছিল ভিস্তারা ও এয়ার ইন্ডিয়ার দু’টি বিমান। তবে সেই ঘটনায় দূরত্ব ছিল ২.৫ কিলোমিটার। মঙ্গলবার বরাত জোরেই যেন বেঁচে গিয়েছেন যাত্রীরা।

Aviation News