ঢাকায় আনা হয়েছে আহত তরিকুলকে

এই লেখাটি 28 বার পঠিত

ছাত্রলীগের হামলায় কোটা সংস্কার আন্দোলনের রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শাখার নেতা তরিকুল ইসলামকে গুরুতর আহত অবস্থায় ঢাকায় স্থানান্তর করা হয়েছে। উন্নত চিকিৎসার জন্য রোববার সন্ধ্যা ৬টায় সহপাঠীরা তরিকুলকে অ্যাম্বুলেন্সে করে ঢাকায় নিয়ে আসেন।

গোপনীয়তার সঙ্গে ঢাকার একটি বেসরকারি হাসপাতালে তার চিকিৎসা শুরু হয়েছে।

তরিকুলের বন্ধু মাসুদ মুন্নাফ বলেন, পরীক্ষা-নিরীক্ষায় তরিকুলের রিপোর্ট খারাপ আসছে। শরীরের ব্যথা বাড়ছে। পরিবার, বন্ধু ও শিক্ষকদের পরামর্শে তরিকুলকে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।

নিরাপত্তার বিষয় বিবেচনায় কোন হাসপাতালে চিকিৎসা চলছে তা প্রকাশ করা হচ্ছে না বলেও জানান তিনি।

রোববার সকালে তরিকুলের বোন ফাতেমা জাগো নিউজকে জানান, তরিকুল ছিল পরিবারের আশার আলো। ওর ভবিষ্যৎ অন্ধকার হলে পরিবারও অন্ধকারে। কৃষক পরিবারেরর সন্তান তরিকুলের এই সংকটাবস্থায় সবাইকে পাশে থাকার অনুরোধ জানান তিনি।

এখানে উল্লেখ্য যে, তরিকুল ইসলাম বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শাখার যুগ্ম আহ্বায়ক।

কোটা সংস্কার আন্দোলনের নেতাদের ঢাকায় মারধর ও গ্রেফতারের প্রতিবাদে ২ জুলাই বিকেলে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনে পতাকা মিছিল বের করেন শিক্ষার্থীরা। ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের মাস্টার্সের ছাত্র তরিকুল পতাকা মিছিলে অংশ নেন। ওই সময় রামদা, হাতুড়ি, লোহার পাইপ, বাঁশ ও লাঠি দিয়ে বেধড়ক পেটানো হয় তরিকুলকে। গুরুতর আহত অবস্থায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ৩১ নম্বর ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়েছিল তাকে।

অসুস্থতা সত্ত্বেও গত বৃহস্পতিবার তাকে হাসপাতাল থেকে ছুটি দেওয়া হয়।

পরিবারের অভিযোগ, চিকিৎসা যখন জরুরি হয়ে পড়েছিল তখনই জোরপূর্বক তরিকুলকে হাসপাতাল থেকে বের করে দেয়া হয়। ওই দিনই রাজশাহীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে তাকে ভর্তি করা হয়েছিল।

Aviation News