এবার পায়ের ‘নো’ বল ডাকবেন টিভি আম্পায়ার

এই লেখাটি 133 বার পঠিত
IMG_06122019_073440_(728_x_410_pixel)

এবার পায়ের ‘নো’ বল ডাকবেন টিভি আম্পায়ার।

ভারত-ওয়েস্ট ইন্ডিজ সীমিত ওভারের সিরিজে সামনের পায়ের ‘নো’ বল ডাকবেন তৃতীয় আম্পায়ার।

হায়দরাবাদে শুক্রবার টি-টোয়েন্টি দিয়ে শুরু হচ্ছে সিরিজ। এই সিরিজে তিনটি করে টি-টোয়েন্টি ও ওয়ানডে খেলবে ভারত ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

বৃহস্পতিবার আইসিসি জানিয়েছে, দুই অনফিল্ড আম্পায়ার আগের মতোই অন্য সব সিদ্ধান্ত দেবেন। তৃতীয় আম্পায়ার ওভারস্টেপিংয়ের ক্ষেত্রে প্রতিটি বল পর্যবেক্ষণ করবেন।

আইসিসি বলছে, সামনের পায়ের ক্ষেত্রে যদি বিধিলঙ্ঘন হয় তাহলে তৃতীয় আম্পায়ার অনফিল্ড আম্পায়ারের সঙ্গে কথা বলবেন এবং পরবর্তীতে অনফিল্ড আম্পায়ার ‘নো’ বল ডাকবেন। এক্ষেত্রে অনফিল্ড আম্পায়ার তৃতীয় আম্পায়ারের পরামর্শ ব্যতীত সামনের পায়ের ‘নো’ বল ডাকতে পারবেন না।

আইসিসি আরও বলছে, তৃতীয় আম্পায়ার স্থিরচিত্রর ওপর ভিত্তি করে কোনো ডেলিভারিকে ‘নো’ ডাকা কঠিন মনে করলে ‘বেনিফিট অব ডাউট’ বোলারের পক্ষে যাবে। আবার কোনো ব্যাটসম্যান যদি আউট হন এবং পরবর্তীতে তৃতীয় আম্পায়ার সেটিকে ‘নো’ বল ডাকেন; তাহলে সেই ব্যাটসম্যান ফিরে এসে ব্যাটিং শুরু করবেন।

এই নিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ওভারস্টেপিং পর্যবেক্ষণের জন্য প্রযুক্তি ব্যবহার করতে যাচ্ছে আইসিসি। প্রথমবার ব্যবহার করা হয়েছিল ২০১৬ সালে ইংল্যান্ড-পাকিস্তান ওয়ানডে সিরিজে। আগামী বছরের আইপিএলেও বাড়তি একজন টিভি আম্পায়ারকে দিয়ে ‘নো’ বল পর্যবেক্ষণের কথা বিবেচনা করা হচ্ছে।

গত আগস্টে আইসিসির জেনারেল ম্যানেজার জিওফ অ্যালারডাইস বলেছিলেন, ২০১৬ সালের প্রযুক্তি ফিরিয়ে আনার চিন্তাভাবনা করছেন তারা। এক্ষেত্রে হক আই অপারেটর তৃতীয় আম্পায়ারের কাছে একটি স্থিরচিত্র পাঠাবেন। যেখানে ‘নো’ বল নির্ধারণ করার জন্য গড়ে সময় লাগবে আট সেকেন্ড।

গত দেড় বছরে আম্পায়ারিং নিয়ে কম বিতর্ক হয়নি। বিশেষ করে, সামনের পায়ের ‘নো’ বল নিয়ে। গত বছরের নভেম্বরে স্কাই স্পোর্টস জানিয়েছিল, শ্রীলঙ্কার লাকশান সান্দাকান ৩০ বলের মধ্যে ১২ বার ওভারস্টেপিং করেছিলেন, যেগুলো আম্পায়ারের চোখ এড়িয়ে যায়। সেই স্পেলে আম্পায়ার ছিলেন ভারতের এস রবি। এ বছরের শুরুতে আইপিএলের একটি ম্যাচেও গুরুত্বপূর্ণ সময়ে লাসিথ মালিঙ্গার ‘নো’ বল রবির চোখ এড়িয়ে গিয়েছিল। সে বলে আউট হয়েছিলেন বিরাট কোহলি। এ নিয়ে বেশ সমালোচনাও হয়েছিল তখন।

গত মাসে ব্রিসবেন টেস্টে অস্ট্রেলিয়ার পেসার প্যাট কামিন্সের বলে আউট হয়েছিলেন পাকিস্তানের মোহাম্মদ রিজওয়ান। রিপ্লেতে দেখা যায়, কামিন্সের বুটের কোনো অংশ লাইনের পেছনে ছিল না। কিন্তু বেশ কয়েকবার রিপ্লে দেখেও ‘নো’ বল দেননি স্বয়ং টিভি আম্পায়ার!

Aviation News