সাইবেরিয়ায় ‘রক্ত’ বৃষ্টি

এই লেখাটি 37 বার পঠিত

রাশিয়ার নরিলস্ক শহরটা একেবারেই নিরিবিলি। সাইবেরিয়ার ঠান্ডা শহরটিতে বাস করেন লাখখানেক মানুষ। এখানে অদ্ভুত কোনো ঘটনা ঘটে না বললেই চলে। তাই কিছুদিন আগে আকাশ থেকে লাল বৃষ্টি হতে দেখে স্তম্ভিত হয়ে পড়েন শহরবাসী। খবর আইএফএলসায়েন্স।

সাইবেরিয়ার এই ‘রক্ত’ বৃষ্টির ছবি এবং ভিডিও খুব দ্রুতই সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ে। অনেকে পৃথিবী ধ্বংসের আলামতও মনে করেন একে। সংবাদমাধ্যমগুলোও এ নিয়ে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়ে।

তবে ‘রক্ত’ বৃষ্টি আসলে নতুন কিছু নয়। মূলত লালচে রঙের বৃষ্টি হলেই তাকে ‘রক্ত’ বৃষ্টি মনে করা হয়। সাধারণত মরু এলাকা থেকে বাতাসের সঙ্গে লাল ধুলো মেঘের সঙ্গে মিশে এই বৃষ্টি তৈরি করে। ঘটনাটি সচরাচর ঘটে না বটে। কিন্তু তা একেবারে অভূতপূর্বও নয়। ইউরোপে আগে দেখা গেছে এমন বৃষ্টি। এমনকি ফিনল্যান্ডে পর্যন্ত দেখা গেছে।

অবশ্য রাশিয়ায় যেমন টকটকে লাল বৃষ্টি দেখা গেছে, সবসময় রংটা এমন নাও হতে পারে। বেশিরভাগ সময়ে ধুলো মেশানো এই বৃষ্টির রং হয় লালচে বাদামী বা হলদেটে। এমনকি আবহাওয়াবিদরা বলেন, যুক্তরাজ্যে বছরে কয়েকবার হতে পারে এমন বৃষ্টি।

কখনো কখনো অবশ্য এমন বৃষ্টির ব্যাখ্যা এত সহজে দেওয়া যায় না। যেমন কয়েক বছর আগে স্পেনের উত্তর-পশ্চিমের এক গ্রামে বৃষ্টির সঙ্গে প্রচুর লাল শৈবাল মিশে থাকতে দেখা যায়।

রাশিয়ার সংবাদপত্রগুলো ধারণা করছে, স্থানীয় এক ধাতু কারখানায় নিকেল এবং প্যালাডিয়াম ধাতু প্রক্রিয়াজাত করা হয়। রঙিন বৃষ্টির জন্য হয়তো সেটাই দায়ী। তারা আয়রন অক্সাইড বা মরিচা পরিষ্কার করছিল কারখানা থেকে। বাতাসের সঙ্গে হয়ত এই মরিচা মিশে রক্তের মতো দেখতে বৃষ্টি তৈরি করেছে।

Aviation News