মাঝ আকাশে হার্ট অ্যাটাকে পাইলটের মৃত্যু

এই লেখাটি 184 বার পঠিত
aeroflot

মাঝ আকাশে হার্ট অ্যাটাকে পাইলটের মৃত্যু।

রাশিয়ার বিমান সংস্থা এরোফ্লোটের যাত্রীবাহী একটি বিমান পরিচালনার সময় মাঝ আকাশে হার্ট অ্যাটাকে ওই বিমানের পাইলটের প্রাণহানি ঘটেছে। রোববার সকালের দিকে অভ্যন্তরীণ ওই ফ্লাইট পরিচালনার সময় মর্মান্তিক এ ঘটনা ঘটে।

মার্কিন সংবাদমাধ্যম ফক্স নিউজ বলছে, অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট পরিচালনার সময় এরোফ্লোটের একটি বিমানের পাইলট হার্ট অ্যাটাকে মারা গেছেন। ওই পাইলটের হার্ট অ্যাটাক হওয়ার পর অন্য ক্রুরা জরুরি চিকিৎসার জন্য কাছের বিমানবন্দরে বিমানটি জরুরি অবতরণের অনুমতি চান। অনুমতি মেলার পর বিমানটি অবতরণের সময়ই ওই পাইলট মারা যান।

ব্রিটিশ দৈনিক ডেইলি মিরর বলছে, এরোফ্লোটের ফ্লাইট এসইউ১৫৪৬ বিমানটি পরিচালনা করছিলেন ৪৯ বছর বয়সী ওই পাইলট। মস্কো থেকে যাত্রী নিয়ে বিমানটি আনাপা শহরের উদ্দেশে যাত্রা করেছিল। উড্ডয়নের পর মাঝ আকাশে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন পাইলট।

পরে প্লাটভ ইন্টারন্যাশনাল বিমানবন্দরে এয়ারবাস-৩২০ বিমানটি জরুরি অবতরণ করে। কিন্তু ততক্ষণে না ফেরার দেশে চলে যান পাইলট।

বিমানের যাত্রী ইয়েলিনা ভোরোনোভা বলেন, ফ্লাইটটি মাঝ আকাশে থাকাকালীন একজন অ্যাটেনডেন্ট ঘোষণা দেন যে, বিমানের একজন ক্রু অসুস্থ বোধ করছেন। বিমানের কোনো চিকিৎসক যাত্রী আছেন কিনা সেটি জানতে চান তিনি।

বিমানের করিডোর দিয়ে আরেকজন ক্রু এগিয়ে আসেন। তিনি আবারও জানতে চান বিমানে কোনো চিকিৎসক যাত্রী আছেন কিনা। এ সময় তারা বলছিলেন, এই মুহূর্তে চিকিৎসকের অত্যন্ত প্রয়োজন। তবে কেউ এগিয়ে আসেননি। ওই পাইলট কার্ডিয়াক অ্যাটাকে ভুগছিলেন। ডেইলি মিরর বলছে, বিমানটি অবতরণের সময় ককপিটেই মারা যান পাইলট।

বিমানটি মস্কোর শ্রেমেটিভো বিমানবন্দর থেকে রোববার সকাল ৮টা ২০ মিনিটে যাত্রা করেছিল। আনাপায় অবতরণের সময় নির্ধারিত ছিল ১০টা ৪০ মিনিট। কিন্তু মাঝ আকাশে পাইলট অসুস্থ হয়ে পড়ায় বিমানটি ৯টা ৫৭ মিনিটে প্লাটভ ইন্টারন্যাশনাল বিমানবন্দরে জরুরি অবতরণ করে। পরে হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসকরা পাইলটকে মৃত ঘোষণা করেন।

Aviation News