রাবিতে কোটা আন্দোলনকারীদের ওপর ফের ছাত্রলীগের হামলা, একজনের অবস্থা গুরুতর

এই লেখাটি 50 বার পঠিত

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনকারীদের (রাবি) ওপর ফের হামলা চালিয়েছে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। এ সময় ছয় আন্দোলনকারী আহত হন।

এদের মধ্যে তরিকুল ইসলাম তারেক নামের এক আন্দোলনকারীর অবস্থা আশঙ্কাজনক। গুরুতর আহত তরিকুলকে রক্তাক্ত অবস্থায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

সোমবার বিকাল ৪টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয় প্রধান ফটকের সামনে এ সংঘর্ষ হয়। তরিকুল ইসলাম তারেক ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী। আহত অন্যদের নাম-পরিচয় জানাতে রাজি হয়নি আন্দোলনকারীরা।

সরেজমিনে দেখা যায়, জাতীয় পতাকা হাতে বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন বিনোদপুরের দিক থেকে আসছিলেন কোটা আন্দোলনকারীরা। এদিকে আন্দোলনকারীদের কর্মসূচির খবর পেয়ে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি গোলাম কিবরিয়া ও সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল আহমেদ রুনুুর নেতৃত্বে প্রধান ফটকে জমায়েত হয় বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

এসময় তাদের হাতে লাঠিসোঠা, জিআই পাইপ, হাতুড়ি, রড দেখা যায়। আন্দোলনকারীদের দেখে ধাওয়া দেয় ছাত্রলীগ। আন্দোলনকারীরাও পাল্টা ধাওয়া দেন। একজন পড়ে গেলে তাকে লাঠি, রড, হাতুরি দিয়ে উপর্যুপরি মারধর করতে থাকেন ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা। পরে তাকে রক্তাক্ত অবস্থায় হাসপাতালে নেয়া হয়।

এর আগে কোটা সংস্কার আন্দোলনে রাবি ছাত্রলীগের মারমুখী অবস্থানের কারণে আন্দোলনে দাঁড়াতে পারেননি শিক্ষার্থীরা। সোমবার বেলা ১১টায় পতাকা মিছিল ও বিক্ষোভ সমাবেশ করার কথা ছিল আন্দোলনকারীদের। ছাত্রলীগের মারমুখী এ অবস্থানের ফলে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে সাধারণ শিক্ষার্থীদের মধ্যে।

রাবি ছাত্রলীগ সভাপতি গোলাম কিবরিয়া বলেন, ‘ক্যাম্পাসের পরিস্থিতি কেউ অস্থিতিশীল করার চেষ্টা করলে তাদের প্রতিহত করা হবে।’

এ বিষয়ে জানতে চাইলে রাবি প্রক্টর অধ্যাপক ড. মো. লুৎফর রহমান বলেন, ‘ক্যাম্পাসে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রাখা হয়েছে। প্রক্টরিয়াল বডির সদস্যরাও সজাগ রয়েছে।’

Aviation News