বিমানকে টেনে নিয়ে গেল টেসলার গাড়ি!

এই লেখাটি 38 বার পঠিত

বিদ্যুতিক গাড়ি নির্মাণে বিশ্বের প্রথম সারির প্রতিষ্ঠান টেসলা। ইলন মাস্কের এই প্রতিষ্ঠান বিদ্যুতিক গাড়ির পাশাপাশি চালকবিহীন স্বচালিত গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠানও।

টেসলা গাড়ির মডেল এক্স এসইউভি এতটাই শক্তিশালী যে, এটি একটি বৃহদাকার বিমানকেও টেনে নিয়ে যেতে পারে। আর এর মাধ্যমেই গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে নিজের নাম লিখিয়ে নিল টেসলার এক্স এসইউভি মডেলটি।

টেসলা গত মঙ্গলবার একটি ভিডিও প্রকাশ করেছে, যেখানে দেখা গেছে অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্ন বিমানবন্দরে একটি ট্যাক্সিওয়েতে প্রায় ১,০০০ ফুট লম্বা এবং ২৮৭,০০০ পাউন্ড ওজনের একটি বোয়িং বিমানকে টেনে নিয়ে যাচ্ছে এসইউভি। বিমানটি কান্ডাজ এয়ারওয়েজের।

টেসলা কর্তৃপক্ষ এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, টেসলার এসইউভি মডেলের গাড়ির এটি একটি বিশাল কৃতিত্ব। এই মডেলটি মূলত ৫,৫০০ পাউন্ড ওজন টেনে নিতে সক্ষম। টেনে নেওয়ার সময় বোয়িং ৭৮৭ বিমানটির ট্যাঙ্কে অল্প পরিমাণে জ্বালানী ছিল, তবে কোনো যাত্রী বা মালামাল বহন করছিল না।

কান্ডাজ এয়ারওয়েজ অস্ট্রেলিয়ার দুটি বিমানবন্দরের মধ্যে খুব কম দূরত্বে বিমান টানার জন্য বিদ্যুতিক টগ ব্যবহার করে। কান্তাস কর্তৃপক্ষের মতে, গাড়ির বিমান টানার ঘটনাটি সবাইকে হতভম্ব করে দিয়েছিল।

অবশ্য কান্তাজ এবং টেসলা কর্তৃক ভিডিও প্রকাশ এটিই প্রথম নয়, যা কিনা মুহূর্তেই ভাইরাল হয়ে গেছে। ২০১১ সালে একটি কান্তাজ বোয়িং ৭৩৭-৮০০ বিমান এস্তোনিয়ান রানওয়েতে টেসলার এস পি৯০ডি মডেলের গাড়ির সঙ্গে প্রতিযোগিতায় নেমেছিল। প্রতিযোগিতাটি খুবই টাইট ছিল যেখানে টেসলা গাড়ির গতি ছিল ঘণ্টায় ১৫৫ মাইল এবং বিমানটি রানওয়ে ছাড়ার পূর্ব মুহূর্তে তার গতি ছিল ঘণ্টায় ১৬০ মাইল।

টেসলার এক্স এসইউভি মডেলের গাড়ির বিমান টানার ঘটনাটি নিঃসন্দেহে বাজারে গাড়িটির বিক্রি বাড়াবে।

Aviation News