বিমানে অশালীন ব্যবহার, চাকরি হারালেন নারী

এই লেখাটি 110 বার পঠিত

বিমানের মধ্যে গালিগালাজ করায় চাকরি হারালেন যুক্তরাষ্ট্রের এক নারী। বিমানে সুসান পেরেজ নামের ওই নারীর বাজে ব্যবহারের ভিডিও এরইমধ্যে অনলাইনে দুই মিলিয়নের বেশিবার দেখা হয়েছে।

ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, রাগান্বিত ওই নারী বিমানের সেবককে চাকরি খাওয়ার হুমকি দিচ্ছেন এবং গভর্নরের হয়ে কাজ করার কথা বলছেন।

সুজানের বিষয়ে তদন্ত করছে তার কর্মস্থল নিউইয়র্ক সিটি কাউন্সিল। কাউন্সিলের ওয়েবসাইট থেকে তার নাম এবং ছবিও সরিয়ে ফেলা হয়েছে।

ঘটনাটি ৬ ফেব্রুয়ারির। নিউইয়র্কের জন এফ কেনেডি এয়াপোর্টে ডেল্টা ফ্লাইটের একটি বিমানে। বিমানের পেছনের দিকে সুজানের পাশের সিটে ৮ মাস বয়সী সন্তান নিয়ে বসেছিলেন মারিসা রানডেল।

রানডেল বলেন,  সুজান তার সিট নিয়ে গালিগালাজ করতে থাকেন। এসময় আমি তাকে বলি, দয় করে আমার ছেলের সামনে এমন ব্যবহার করবেন না। জবাবে সে আমাকেও গালি দেয়।’

এরপর সে বিমানের কর্মীকে ডেকে ওই বাচ্চার পাশের সিটে বসতে অস্বীকৃতি জানান। তিনি বলেন, ‘এই ক্রন্দনরত শিশুর পাশে আমি বসবো না।’

অথচ বাচ্চাটি কাঁদছিলো না বলে জানান তার মা রানডেল।

বিমানকর্মী সুজানকে পরের ফ্লাইটে আসার পরামর্শ দেন। এতে আরও ক্ষেপে যান সুজান। সে ওই কর্মীর নাম জানতে চান এবং বলেন, ‘কাল তোমার চাকরিটা হয়তো থাকবে না।’ ফ্লাইট অ্যাটেন্ডেন্ট তাকে বিমান থেকে বের করে দিতে চাইলে ক্ষমা চান সুজান। ঘটনাটি একজন পরিদর্শকের কাছে জানালে শেষ পর্যন্ত বিমান থেকে নামিয়ে দেয়া হয় সুজানকে।

ওই নারীর এমন ভোল পাল্টানো দেখে বিস্মিত হয়ে যান বলে জানান রানডেল।

ঘটনাটি নিজের মোবাইল ফোনে ভিডিও করেন রানডেল। তবে এই ভিডিও যে এতটা ভাইরাল হয়ে পড়বে সেটা ভাবতেই পারেননি তিনি। এতে সুজানের চাকরি ঝুঁকিতে পড়ায় খারাপ লাগছে বলেও জানান রানডেল।

Aviation News