বৃহস্পতিবার আবেদন করা হবে খালেদার জামিন : মওদুদ

এই লেখাটি 82 বার পঠিত

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিচারিক আদালতের দেওয়া সাজার রায়ের বিরুদ্ধে আপিলের শুনানির জন্য আগামী বৃহস্পতিবার দিন ধার্য করেছেন হাইকোর্ট। ওইদিনই খালেদা জিয়ার জামিনের আবেদন করা হবে বলে জানিয়েছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ।

মঙ্গলবার হাইকোর্টে আপিল আবেদনের শুনানির দিন ধার্য হওয়ার পর তিনি সাংবাদিকদের একথা জানান।

এর আগে, মঙ্গলবার বিকেলে খালেদা জিয়ার আইনজীবী ব্যারিস্টার কায়সার কামাল হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় এ আপিল (আপিল নং ১৬৭৬/২০১৮) আবেদন করেন। আপিলের ফাইলিং আইনজীবী হিসেবে আবদুর রেজাক খানের নাম রয়েছে।

আপিলে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্টের অর্থ প্রদান ও যাবতীয় লেনদেনের সঙ্গে খালেদার জিয়ার কোনো ধরনের সম্পৃক্ততা নেই; ট্রাস্টের কোনো অর্থ লেনদেন হয়নি; ওই অর্থ বেড়ে বর্তমান তিন গুণ হয়েছে এমন ২৫টি যুক্তি দেখিয়ে খালেদা জিয়ার খালাস চাওয়া হয়েছে।

মওদুদ আহমদ বলেন, আমরা আজ আদালতে আপিল করেছি। আদালত শুনানির জন্য আগামী বৃহস্পতিবার দিন ধার্য করেছেন। ওইদিনই আমরা জামিন আবেদনও করবো। আশা করছি সেদিন জামিন শুনানিও অনুষ্ঠিত হবে।

প্রসঙ্গত, গত ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেন ঢাকার ৫ নম্বর বিশেষ জজ আদালতে বিচারক ড. মো. আখতারুজ্জামান। খালেদা জিয়ার পাশাপাশি তার বড় ছেলে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসন তারেক রহমানসহ মামলার অন্য পাঁচ আসামিকে ১০ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

রায়ে খালেদা জিয়া ছাড়া অন্য আসামিদের ২ কোটি ১০ লাখ ৭১ হাজার ৬৪৩ টাকা ৮০ পয়সা জরিমানাও করা হয়েছে। রায় ঘোষণার পরপরই কঠোর নিরাপত্তার মধ্যে খালেদা জিয়াকে নিয়ে যাওয়া হয় নাজিমউদ্দিন রোডের পুরনো কারাগার ভবনে। সেই দিন থেকে এখনো কারাগারেই রয়েছেন সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী।

এদিকে, রায় ঘোষণার ১১দিন পর গতকাল সোমবার বিকেলে খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা রায়ের সার্টিফাইড কপি বা অনুলিপি হাতে পান। এরপর আজ বিকালে তারা নিম্ন আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে আপিল করেন।

Aviation News