শাহজালাল বিমানবন্দরে জুতার ভেতরে বৈদেশিক মুদ্রা, যাত্রী গ্রেপ্তার

এই লেখাটি 132 বার পঠিত

হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে মালয়েশিয়াগামী এক যাত্রীর জুতার ভেতর থেকে প্রায় ১৬ লাখ টাকা মূল্যের সৌদি রিয়াল ও মালয়েশিয়ান জব্দ করেছে শুল্ক গোয়েন্দা।

শুক্রবার গভীর রাতে এমন ঘটনায় যাত্রীকে শুল্ক আইন ও মানিলন্ডারিং প্রতিরোধ আইনে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

শনিবার শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ড. মইনুল খান এসব তথ্য জানিয়েছেন।

শুল্ক গোয়েন্দা জানায়, গতকাল মধ্যরাতে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বহির্গমন যাত্রীর কাছ থেকে ঘোষণা বহির্ভূত ও বিশেষভাবে লুকায়িত সৌদি রিয়াল ও মালয়েশিয়ান রিঙ্গিত জব্দ করা হয়। পাসপোর্ট অনুযায়ী যাত্রীর নাম কামরুল ইসলাম। বাড়ি মুন্সিগঞ্জ। তিনি রাত ১১টা ৪৫ মিনিটে ওডি -১৬৫ ফ্লাইট যোগে ঢাকা থেকে মালয়েশিয়া যাচ্ছিলেন।

সূত্র জানায়, গোপন সংবাদ থাকায় ওই যাত্রী ৮ নম্বর বোর্ডিং গেইটের মাধ্যমে বোর্ডিং সম্পন্ন করে। এ সময় শুল্ক গোয়েন্দার একটি দল তার কাছে বৈদেশিক মুদ্রা আছে কি না জানতে চাইলে তিনি অস্বীকার করেন। পরবর্তীতে যাত্রীর দেহ তল্লাশি করে যাত্রীর পরিহিত জুতার ভেতর বিশেষ কায়দায় কাগজে মুড়িয়ে লুকায়িত অবস্থায় মোট ৭০ হাজার সৌদি রিয়াল ও দুই হাজার ২০০ মালয়েশিয়ান রিঙ্গিত উদ্ধার করে শুল্ক গোয়েন্দা। বাংলাদেশি টাকায় এসব মুদ্রার পরিমাণ ১৫ লাখ ৮৬ হাজার ২০০ টাকা।

জিজ্ঞাসাবাদে কামরুল ইসলাম জানান, বাংলাদেশ থেকে মুদ্রা পাচার করে মালয়েশিয়ায় বিক্রি করেন এবং দেশে আসার সময় ল্যাপটপ, কসমেটিকস, সিগারেট ইত্যাদি নিয়ে আসার উদ্দেশ্যে এসব মুদ্রা অবৈধভাবে বহন করছিলেন। এর আগে তিনি এভাবে ১০ থেকে ১১ বার মুদ্রা বহন করেছিলেন বলে স্বীকার করেন।

পাসপোর্ট চেক করে দেখা যায়, কামরুল ইসলাম চলতি বছরের জানুয়ারি ও ফেব্রুয়ারিতে চারবার এবং ২০১৭ সালে ৩৩ বার বিদেশ গেছেন। ঘোষণা ছাড়া এবং লুকানোর কারণে বৈদেশিক মুদ্রা নিয়ন্ত্রণ আইন ও শুল্ক আইন ভঙ্গ হয়েছে। এ ব্যাপারে আটককৃত যাত্রীকে শুল্ক আইন ও মানিলন্ডারিং প্রতিরোধ আইনে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

Aviation News