উইন্টার অলিম্পিকে স্কেটিংয়ের মাঝেই খুলে গেল জামার হুক! (ভিডিও)

এই লেখাটি 64 বার পঠিত

জীবনের প্রথম উইন্টার অলিম্পিকের আসরে এসেই স্টেজে পোশাক বিভ্রাটে পড়লেন দক্ষিণ কোরিয়ার এক স্কেটার। স্কেটিং করতে করতে হঠাৎ পোশাক বিভ্রাট ঘটে তার। তবুও এক মুহূর্তের জন্য থামেনি তার পা। ওই অবস্থাতেই পুরো রুটিন শেষ করেছেন তিনি।

দক্ষিণ কোরিয়ার স্কেটার য়ুরা মিন তার পার্টনার আলেক্সজান্ডার গেমলিনকে নিয়ে স্কেটিং করতে নামেন। স্কেটিং করতে করতে হঠাৎ তার জামার হুক খুলে যায়। তারপরেও স্কেটিং করে গেছেন তিনি। ক্যামেরায় মিনের অভিব্যক্তি দেখে বোঝার উপায় ছিল না যে তার পোশাকে সমস্যা দেখা দিয়েছে। দিব্যি পেশাদারদের মতোই রুটিন শেষ করেছেন তিনি। এছাড়া তার পার্টনার আলেক্সজান্ডারকেও পুরো রুটিনে ‘কুল’ দেখা গেছে।  যদিও একবার তাকে মিনের পোশাক ঠিক করতে দেখা গেছে।

হুক খুলে যাওয়ায় পোশাকটি সামনের দিকে আলগা হয়ে যাচ্ছিল। তা সামাল দিয়ে দেন আলেক্সজান্ডার। ক্যামেরাতে অবশ্য সেটা ধরাও পড়েছে।

তবে মিন যে একেবারেই ঘাবড়ে যাননি তা মোটেও না। তিনি খুব নার্ভাস হয়ে পড়েছিলেন। কিন্তু তা প্রকাশ করেননি মিন। পরে সাংবাদিকদের তিনি জানান, প্রথমে ঘাবড়ে গিয়েছিলাম। নার্ভাস হয়ে পড়েছিলাম ঠিকই। কিন্তু মাঝপথে থামলেই যে পয়েন্ট কাটা যাবে। তাই কোনো কিছু না ভেবেই স্কেটিং করে গেছি।

তবে এই পরিস্থিতিতেও বুদ্ধিমত্তার পরিচয় দিয়েছেন তিনি। পোশাক যাতে খুলে না আসে তার জন্য হাত দুটিকে সবসময় টানটান করে পিছনের দিকে রাখার চেষ্টা করেছেন। হাত দুটিকে সামনে আনলে বা ঝুঁকলে অনুষ্ঠানটি মাটি হয়ে যেত। মিনের এটা প্রথম অলিম্পিক। জীবনের প্রথম অলিম্পিকে পোশাক বিভ্রাটের জেরে তার স্কেটিং খারাপও হতে পারতো। কিন্তু মাথা ঠান্ডা রেখে ও নিজের উপর আত্মবিশ্বাসের জোরে ভালোয় ভালোয় উতরে গেছেন মিন।

পয়েন্ট ঘোষণার পর দেখা যায়- মিন ও আলেক্সজান্ডার ৫১.৯৭ পয়েন্ট পেয়ে নবম স্থান পেয়েছেন। ৮০.৫১ পয়েন্ট পেয়ে প্রথম হয়েছে কানাডার টিম।

তবে নম্বর দেখে মোটেও অখুশি হননি মিন ও আলেক্সজান্ডার। পোশাক বিভ্রাট না হলে ফলাফল অন্য রকম হতো বলে জানিয়েছেন তারা।

Aviation News