এবার ভারতের হাসপাতালে অপারেশন করবে রোবট!

এই লেখাটি 102 বার পঠিত

এবার হাসপাতালে অপারেশন করবে রোবট!
যে অপারেশন করবে তার চারটি হাত! এক হাতে কাটাছেঁড়া, অন্য হাতে অস্ত্রোপচার, আরও দুই হাতে স্টিচ চলবে সমানতালে। আর মাত্র ক’টা দিন। কলকাতার সরকারি হাসপাতালের অপারেশন থিয়েটার দেখলে চোখে ধাঁধা লেগে যেতে পারে। অপারেশন হবে অথচ সার্জনই থাকবেন না। পুরো বিষয়টাই নিজের হাতে করবে যন্ত্রমানব। সোমবার কলকাতা মেডিক্যাল কলেজে চিকিৎসকদের হাতে-কলমে শেখানো হল রোবট পরিচালনার অ-আ-ক-খ। খবর ভারতীয় গণমাধ্যমের।

আমেরিকার দ্য ভিঞ্চি কর্পোরেশনের তৈরি এই রোবটের দাম প্রায় ৩৬ কোটি টাকা। মেডিক্যাল কলেজের রোগী কল্যাণ সমিতির চেয়ারম্যান নির্মল মাজি জানান, লিভার প্রতিস্থাপন, কিডনি প্রতিস্থাপন, ওপেন হার্ট সার্জারি থেকে অ্যাঞ্জিওপ্লাস্টি সমস্ত অস্ত্রোপচার করতে পারবে এই রোবট। পারবে ক্যানসারের সার্জারিও। সাধারণ মানুষের হাতেই যেখানে অস্ত্রোপচার করতে ভয় হয়। সেখানে রোবটের অস্ত্রোপচার কতটা নিরাপদ? এই নিয়ে ধন্দ কাটিয়েছেন মেডিক্যাল কলেজে ইউরোলজি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ডাঃ মলয় বেরা। বিদেশ থেকে তিনি রোবোটিক সার্জারির উপর বিশেষ প্রশিক্ষণ নিয়েছেন। মেডিক্যাল কলেজে রোবটিক সার্জারির প্রশিক্ষণ দিচ্ছেন তিনিই। ডাঃ বেরা জানিয়েছেন, অটোমেটিক সেফটি সুইচ রয়েছে যন্ত্রে। কোনও সময় যদি চিকিৎসকের মনে হয় কোনও অসুবিধা হচ্ছে তবে তৎক্ষণাৎ এই সুইচ টিপে রোবটটিকে নিস্ক্রিয় করতে পারবেন তিনি।

আদতে রোবোটিক সার্জারি নাম হলেও রোবট নিজে এই অস্ত্রোপচার নিয়ন্ত্রণ করবে না। একটু দূরে কন্ট্রোল প্যানেলে বসে রোবটের হাত নিয়ন্ত্রণ করবেন একজন চিকিৎসকই। সামনে থাকবে থ্রি ডি স্ক্রিন। সেই স্ক্রিনেই রোগীকে দেখতে পারবেন সার্জন। রোগীর ছবি ত্রিমাত্রিক হওয়ায় পরিষ্কার সমস্ত কিছু দেখা যাবে। গোটা অপারেশনটি আবার একটি বড় স্ক্রিনে দেখবেন সহকারী সার্জনরা। সেখান থেকেই তারা অ্যাসিস্ট করতে পারবেন সার্জনকে। এতদিন টাটা মেডিক্যাল-সহ একাধিক বেসরকারি হাসপাতালে রোবোটিক সার্জারি হলেও সরকারি ক্ষেত্রে তা সম্ভব ছিল না। এই প্রথম মেডিক্যাল কলেজে আনা হল এই মেশিন। জানা গিয়েছে মেডিক্যাল কলেজ থেকে এই রোবটটি এরপর এনআরএস ও তারপর এসএসকেএম হাসপাতালেও নিয়ে যাওয়া হবে। রাজ্য মেডিক্যাল কাউন্সিলের সভাপতি ডাঃ নির্মল মাজি জানান, সাধারণ সার্জারির তুলনায় রোবোটিক সার্জারিতে রক্তপাত অত্যন্ত কম। অনেক সূক্ষ্ম অপারেশনও অনেক কম সময়ে করা যায় রোবটের মাধ্যমে।

Aviation News