আগ্নেয়গিরির উদগিরণ: বিমান চলাচলে সতর্কতা

এই লেখাটি 78 বার পঠিত

গুয়াতেমালায় অগ্ন্যুৎপাত শুরু হয়েছে দক্ষিণাঞ্চলের ফুয়েগো আগ্নেয়গিরি থেকে৷ আগ্নেয়গিরি থেকে নির্গত ছাইভস্ম আকাশের অনেক উঁচু পর্যন্ত ছড়িয়ে পড়ছে।

গুয়াতেমালা সিটি থেকে মাত্র ৫০ কিলোমিটার বা ৩০ মাইল দূরে অবস্থিত ফুয়েগো আগ্নেয়গিরিটি৷ শহরটির লোকসংখ্যা ১০ লাখ। ইতিমধ্যে কয়েক হাজার মানুষকে নিরাপদ স্থানে সরানো হয়েছে৷
আগ্নেয়গিরিটি সমুদ্রস্তর থেকে ৪ হাজার ৮০০ মিটার (১৬০০০ ফুট) উঁচুতে ছাইভস্ম উদগিরণ করছে। অগ্ন্যুৎপাতজনিত ছাইমেঘের কারণে স্থানীয় বিমান চলাচলে সতর্কতা জারি করা হয়েছে। দেশের জাতীয় ভূকম্পন, আগ্নেয়গিরি, আবহাওয়া বিষয়ক ইনস্টিটিউট জানিয়েছে দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলীয় সান্তিয়াগুইতোর সান্তা মারিয়া আগ্নেয়গিরির জ্বালামুখ থেকে প্রায় ৫০০ মিটার উঁচুতে ছাইমেঘের উদগীরণ হচ্ছে।

সংস্থাটি আগ্নেয়গিরির ওপর যে স্থানে ছাইমেঘ নির্গত হচ্ছে- তার আশপাশের এলাকা দিয়ে বিমান চলাচলের ওপর সতর্কতা জারি করেছে৷ গুয়াতেমালায় যে কয়েকটি সক্রিয় আগ্নেয়গিরি রয়েছে তার মধ্যে ফুয়েগো ও সান্তা মারিয়া অন্যতম।

দুর্যোগ মোকাবেলা অফিস কনরাড-এর সেক্রেটারি আলেজান্দ্রো মালদোনাদো বলেছেন, তথাকথিত ‘ফায়ার ভলক্যানো’ এখনও এতোটা বিপজ্জনক পর্যায়ে পৌঁছেনি যে আশপাশের গ্রামগুলো থেকে বাসিন্দাদের অন্যত্র সরাতে হবে। প্রাথমিক পর্যায়ে আগ্নেয়গিরির পাদদেশ থেকে বাসিন্দাদের সরানো হয়েছে৷

বিশেষজ্ঞরা জানান, আগামী কয়েক ঘণ্টায় আগ্নেয়গিরিটির ভিতর থেকে প্রচুর অগ্ন্যুৎপাত হতে পারে এবং এর ফলে আকাশ পথে বিমান চলাচলে বিঘ্ন সৃষ্টি করতে পারে। মধ্য আমেরিকায় যে কয়েকটি সক্রিয় আগ্নেয়গিরি রয়েছে, এটি তার অন্যতম।

Aviation News