চলতি মৌসুমে হজের অনিয়ম ও দুর্নীতি তদন্ত করবে দুদক

এই লেখাটি 188 বার পঠিত

হজচলতি মৌসুমে হজের অনিয়ম, অব্যবস্থাপনা ও দুর্নীতির বিষয় অনুসন্ধান করবে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। সম্প্রতি দুদকের সহকারী পরিচালক মাসুদুর রহমানকে প্রধান করে তিন সদস্যের একটি অনুসন্ধান কমিটি গঠন করা হয়েছে। ধর্ম মন্ত্রণালয়ের কাছে চলতি মৌসুমে হজের অনিয়ম, অব্যবস্থাপনা ও দুর্নীতিসংক্রান্ত গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবরের বিষয়ে জানতে চেয়েছে অনুসন্ধান কমিটি। সোমবার সচিবালয়ে ধর্ম মন্ত্রণালয়ে ভারপ্রাপ্ত সচিবের সঙ্গে দেখা করে তারা এসব বিষয়ে মন্ত্রণালয়ের নথিপত্র চান।

ধর্ম মন্ত্রণালয়ে ভারপ্রাপ্ত সচিব আনিছুর রহমান উল্লিখিত বিষয়ের সত্যতা স্বীকার করে মঙ্গলবার যুগান্তরকে বলেন, চলতি মৌসুমে হজের অনিয়ম ও অব্যবস্থাপনা নিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে যেসব খবর প্রকাশিত হয়েছে সেসব বিষয়ের তথ্য-উপাত্ত চেয়েছে দুদক। আগামী ২৮ ডিসেম্বরের মধ্যে এ সংক্রান্ত নথিপত্র সরবরাহ করা হবে। এ ছাড়া চলতি বছর ধর্ম মন্ত্রণালয়সংক্রান্ত যেসব অনিয়ম ও দুর্নীতির খবর প্রকাশিত হয়েছে, সেসব বিষয় নিয়েও অনুসন্ধান করবে তারা।

ধর্ম মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, চলতি বছর হজের অনিয়ম, অব্যবস্থাপনা ও দুর্নীতির বিষয়ে মোট ২২৮টি হজ এজেন্সির বিরুদ্ধে অভিযোগ জমা পড়ে। টাকা নিয়েও হাজীদের মানসম্মত ট্রুলিব্যাগ না দেয়া, ভিসা থাকার পরও হজে পাঠাতে তালবাহানা, সৌদি আরবে তাসরিয়াবিহীন (চুক্তিহীন) বাড়িতে রাখা ও নিন্মমানের খাবার দেয়াসহ বিভিন্ন অভিযোগ ওঠে এসব এজেন্সির বিরুদ্ধে। অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ খতিয়ে দেখতে গত নভেম্বরে তিনটি তদন্ত কমিটি করে ধর্ম মন্ত্রণালয়। প্রথম কমিটির প্রধান করা হয় ধর্ম মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব (হজ) হাফিজ উদ্দিনকে। সদস্য হলেন পরিচালক (হজ) সাইফুল ইসলাম ও উপ-সচিব (হজ) শরাফত জামান। মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব (উন্নয়ন) হাফিজুর রহমানের নেতৃত্বে গঠিত অপর কমিটির সদস্যরা হলেন উপ-সচিব (বাজেট) জহির আহমেদ এবং সহকারী সচিব (হজ-২) এসএম মনিরুজ্জামান। দুটি কমিটিই ৭৫টি করে এজেন্সির অভিযোগ তদন্ত করবে। যুগ্ম সচিব (সংস্থা) এবিএম আমিন উল্লাহ নুরীর নেতৃত্বে গঠিত তৃতীয় কমিটির সদস্যরা হলেন উপ-সচিব (প্রশাসন) একেএম শহীদুল্লাহ, উপ-সচিব (উন্নয়ন) সাখাওয়াত হোসেন এবং মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র তথ্য কর্মকর্তা আনোয়ার হোসাইন। এ কমিটি ৭৮টি এজেন্সির অভিযোগ খতিয়ে দেখবে। ইতিমধ্যে কমিটিগুলো সংশ্লিষ্ট এজেন্সির শুনানি শুরু করেছে। সংশ্লিষ্টদের অভিযোগ, মন্ত্রণালয়ের কর্তাব্যক্তিরা নিজেদের সুবিধামতো ও এজেন্সি মালিকদের স্বার্থ অক্ষুণœ রেখে প্রতি বছর হজ নীতিমালার ধারা সংযোজন ও বিয়োজন করেন। ফলে অনিয়ম ও দুর্নীতি রোধে যেমন খুব বেশি তা কাজে লাগে না, তেমনি অনিয়ম করেও সহজেই পার পেয়ে যান জড়িতরা। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক হাবের এক নেতা বলেন, ধর্ম মন্ত্রণালয়ের উদাসীনতার কারণেই হজ ব্যবস্থাপনায় অনিয়ম ও প্রতারণা বহাল রয়েছে। নানা নামে একই ব্যক্তির একাধিক হজ লাইসেন্স রয়েছে। একটি বাতিল হলে অন্যটির মাধ্যমে চলে হজ-বাণিজ্য। এ ব্যাপারে মন্ত্রণালয়ের কোনো মনিটরিং ব্যবস্থা নেই। কারও বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ পেলেই শুধু মন্ত্রণালয় তদন্ত করে। দোষ প্রমাণ হলে নামকাওয়াস্তে শাস্তি দেয়। তার পরও ক্ষেত্র বিশেষে ওই শাস্তির পরিমাণও কমে যায় ‘রিভিউ’র নামে মন্ত্রণালয়ের কিছু অসাধু কর্মকর্তার ‘লেনদেন’র মাধ্যমে। কোনো কোনো ক্ষেত্রে অভিযোগ থেকে অব্যাহতিও দেয়া হয়।

এসব কারণে এবার বিষয়গুলো নিয়ে দুদক অনুসন্ধান করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে জানিয়েছে সংশ্লিষ্ট সূত্র।

ধর্ম মন্ত্রণালয় যেসব এজেন্সির বিরুদ্ধে তদন্ত করছে তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল- নূরানী ট্যুরস অ্যান্ড ট্রাভেলস, পেনাং ট্রাভেলস অ্যান্ড ট্যুরস, পারফেক্ট ট্রাভেলস, রহমানিয়া ইন্টারন্যাশনাল, এসএম ফরহাদ এয়ার ট্রাভেলস, এসএন ট্রাভেলস অ্যান্ড ট্যুরস, সাঈদ এয়ার ইন্টারন্যাশনাল, সারা এয়ার ইন্টারন্যাশনাল, শানিন এয়ার ইন্টারন্যাশনাল প্রাইভেট লিমিটেড, শুয়াইব এয়ার ইন্টারন্যাশনাল, সিয়াম ওভারসিজ, সোনিয়া ট্রাভেলস অ্যান্ড ট্যুরস, সুবহা ইন্টারন্যাশনাল, শোহাইল এয়ার ইন্টারন্যাশনাল, সানশাইন ট্রাভেলস এয়ার ইন্টারন্যাশনাল, তিশা এয়ার সার্ভিস, বাবুস সালাম স্কাই এয়ারওয়েজ, মিম ট্রাভেলস ইন্টারন্যাশনাল, আল আকসা ট্রাভেলস, আদ-দীন ইন্টারন্যাশনাল, ইন্টার গালফ ট্রাভেলস লিমিটেড, মজুমদার এয়ার ইন্টারন্যাশনাল, জীবন ট্রাভেল লিমিটেড, আটলান্টিক এভিয়েশন অ্যান্ড ট্যুরিজম, কাশেম ট্যুরস অ্যান্ড ট্রাভেলস, এস আহমেদ ট্যুরস অ্যান্ড ট্রাভেলস, কমপ্যাক্ট ট্রাভেলস অ্যান্ড ট্যুরস সার্ভিস লিমিটেড, শামস ট্রাভেলস অ্যান্ড ট্যুরস, ওয়াহিদ ট্রাভেলস, হাজি-হাফেজ ট্রাভেলস অ্যান্ড ট্যুরস, ট্রাভেল ওয়ার্ল্ডস, আল রাফি ট্রাভেলস ট্রেড, মক্কা ওভারসিজ, ওলামা-আওলিয়া হজ গ্রুপ, আল হায়াত এভিয়েশন, সেনশুরি এভিয়েশন, ঢাকা হজ কাফেলা ও ট্রাভেলস, ফিহা ট্যুরস অ্যান্ড ট্রাভেলস, হাসান ওভারসিজ, জান্নাত হজ ট্রাভেলস অ্যান্ড ট্যুরস, করতোয়া ট্রাভেলস ইন্টারন্যাশনাল, এভারেস্ট ট্যুরস অ্যান্ড ট্রাভেলস, মাহির হজ সার্ভিস অ্যান্ড ট্যুরস, মাসুম এয়ার ট্রাভেলস, এমসিও ট্রাভেলস অ্যান্ড ট্যুরস, নুর-ই-মদিনা ট্রাভেলস অ্যান্ড ট্যুরস, আকবর ট্রাভেলস ইন্টারন্যাশনাল, আল আমানাত ট্রাভেলস, আবকো এয়ার সার্ভিস, কক্সবাজার ট্যুরস অ্যান্ড ট্রাভেলস, জামান এন্টারপ্রাইজ, মদিনা এয়ার ইন্টারন্যাশনাল এভিয়েশন, নর্দান ট্যুরস অ্যান্ড ট্রাভেল, সেভেন স্টার এভিয়েশন, সিরাজগঞ্জ ট্যুরস অ্যান্ড ট্রাভেলস, ট্রাভেলস নুরানী, ব্রাইট ট্রাভেলস, আল সাফা এয়ার ট্রাভেলস, সাউথ এশিয়ান ট্রাভেলস, বুশরা ট্রাভেলস অ্যান্ড ট্যুরস, মাকারিম আল বায়্যিত ট্যুরিজম সার্ভিস, হলি দারুননাজাত হজ সার্ভিস, রহমানিয়াহ হজ অ্যান্ড ওমরাহ ট্রাভেলস, সানজিদ ট্রাভেলস ইন্টারন্যাশনাল, সালওয়াহ ওভারসিজ সার্ভিস, ইউনাইটেড ট্যুরস অ্যান্ড ট্রাভেলস লিমিটেড, হিজল ট্যুরস অ্যান্ড ট্রেডার্স, সুপার খিদমাহ ট্রাভেলস, আবদুল আজিজ ট্রাভেলস অ্যান্ড ট্যুরিজম, আলহাজ ট্রাভেলস ট্রেড, আল হারামাইন ট্রাভেলস, কলম্বিয়া ট্রাভেলস ইন্টারন্যাশনাল, কেরানীগঞ্জ ট্রাভেলস ইন্টারন্যাশনাল, আত-তাইয়ার ট্রাভেলস অ্যান্ড ট্যুরস, আশা এভিয়েশন, এয়ার কিং ট্রাভেলস অ্যান্ড ট্যুরস, আল-বারি ট্রাভেলস ইন্টারন্যাশনাল, আল বালাদ ওভারসিজ, ব্রাইট ট্রাভেলস।

Aviation News