পোপকে বহন করে নতুন মর্যাদায় অভিষিক্ত বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স

এই লেখাটি 1008 বার পঠিত

94716_11রাষ্ট্রীয় এবং পালকীয় সফরে পোপ ফ্রান্সিসের প্রতি সর্বোচ্চ সম্মান দেখিয়েছে বাংলাদেশ। পোপ যে দেশ সফর করেন সে দেশের আয়োজনে বিমানযোগে রোম পর্যন্ত তাকে এবং সফরসঙ্গীদের পৌঁছে দেয়া হয়। আমন্ত্রণকারী রাষ্ট্রের তরফে পোপের প্রতি সম্মান প্রদর্শনের এমন আয়োজন অনেকটা রেওয়াজে পরিণত হয়েছে। কিন্তু বাংলাদেশ এর চেয়ে বেশি কিছু করতে চেয়েছে। আর তাই ঢাকার প্রস্তাবে আপত্তি করেনি ভ্যাটিকান। পোপের প্রতি সর্বোচ্চ সম্মান প্রদর্শনে বাংলাদেশ বিমান পাঠিয়ে দেয়া হয় ইয়াংগুনে।
লাল সবুজের পতাকাবাহী ‘মেঘদূত’ পোপকে মিয়ানমার থেকে আগাম অভ্যর্থনা জানিয়ে বাংলাদেশ নিয়ে আসে। শনিবার বাংলাদেশ বিমানের বিশেষ ফ্লাইট অরুণ আলোতে রোম পৌঁছান পোপ ফ্রান্সিস। পোপকে বহন করে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স নতুন মর্যাদায় অভিষিক্ত হয়েছে বলে মনে করে সংস্থাটি। এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এটাকে বিমানের জন্য গৌরবের বলে উল্লেখ করা হয়। শনিবার বিকাল ৫টা ৫ মিনিটে পোপ হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে রোমের উদ্দেশে যাত্রা করেন। বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও মোসাদ্দিক আহমেদ ও মহাব্যবস্থাপক শাকিল মেরাজ পোপকে পৌঁছে দিতে রোম যান। ঢাকা থেকে সরাসরি রোমে পোপকে বহনকারী বিমানের বোয়িং ৭৭৭-৩০০ ইআর উড়োজাহাজের অরুণ আলোয় ছিলেন ক্যাপ্টেন ফজল ও ক্যাপ্টেন ইহছাক। এছাড়া তাদের সহায়তায় ছিলেন ফার্স্ট অফিসার রুবায়েত ও মইনুল। এ প্রসঙ্গে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও মোসাদ্দিক আহমেদ বলেন, ভিভিআইপি ফ্লাইট মর্যাদায় পোপকে বহন করার জন্য বিমানকে বেছে নেয়ায় ভ্যাটিকানের কাছে আমরা কৃতজ্ঞ। এতে বিমানের প্রতি খ্রিস্টান ধর্মীয় গুরুর আস্থা প্রকাশ পেয়েছে।

Aviation News