বিদেশ ভ্রমণে হালাল ও মুখরোচক খাবারের খোঁজ দেবে ফুডস্পটিং!

এই লেখাটি 185 বার পঠিত

downloadদেশের বাইরে গিয়ে খাবার নিয়ে বিপদে পড়েননি এমন বাংলাদেশি সম্ভবত নেই। একে তো আমাদের খাবারের স্টাইল অনেকের সাথেই মেলে না, তার উপরে আছে হালাল আর হারাম এর চিন্তা।

রেস্তরাঁ রিভিউ এর জন্য অনেক ওয়েবসাইট আছে, কিন্তু ঠিক বিশেষ ভাবে খাবার নিয়ে সেরকম কোন সার্ভিস ছিল না। তবে স্মার্ট-ফোনের জিও লোকেশন সুবিধা, ক্যামেরা ও এপস, এইসব সুযোগ কাজে লাগিয়ে একজন সাধারণ মানুষের সুবিধার কথা ভেবে কাজ করছে ফুডস্পটিং।

বিষয়টি জটিল নয়। আপনি যখন কোন ভিনদেশে থাকবেন, তখন আপনার স্মার্ট-ফোনটি চালু করবেন এবং ইন্টারনেট কানেকশন থাকা সাপেক্ষে সাথে সাথেই দেখতে পারবেন আপনার আশেপাশে কত শত খাবারের ছড়াছড়ি। আপনি সেগুলো নাম দিয়ে সার্চ করতে পারেন, যে রেস্তরাঁয় এই খাবার তা কত দুরে সেটা দেখতে পারবেন, এটার বিষয়ে ইউজার রিভিউ কী রকম, তাও দেখতে পারবেন।

এর ফলে আপনি ভিনদেশে গিয়ে অচেনা সব খাবার নিয়ে বিপদে পড়বেন না। হালাল খাবার খুঁজে পেতে খাবারের নামের আগে ‘Halal’ শব্দটি যোগ করে সার্চ করুন। আপনার আশেপাশে কোথায় হালাল খাবার আছে, তা দেখতে পারবেন। এছাড়াও ইউজার রিভিউ দেখে আপনি বুঝতে পারবেন খাবারটি হালাল নাকি হারাম ভাবে প্রস্তুত করা।

এই ফুডস্পটিং এপটিতে আপনি ইউজার হতে পারেন, আবার কন্ট্রিবিউটরও হতে পারেন।

আপনি হতে পারেন একজন সাধারণ ব্রাউজার, আপনি আপনার বর্তমান লোকেশনে আশেপাশে কোথায় কী খাবার আছে তা দেখতে পারেন, আবার সার্চ করে বিশেষ কোন খাবার আপনার কাছাকাছি কোথাও আছে কী না তাও দেখতে পারেন। এরপরে আপনার অবস্থান থেকে সেখানে কীভাবে যাবেন, খাবারের মূল্য কত, সেগুলো তথ্যও পেতে পারেন।

আবার আপনি যখন কোথাও খেতে গিয়েছেন, যা অর্ডার করেছেন, সেটা হাতে এলে একটা ছবি তুলে নাম, মূল্য, স্বাদ সম্ভব হলে কি কি উপাদান ব্যবহার করা হয়েছে, সেগুলো তথ্য যুক্ত করে আপলোড করে দিতে পারেন। এভাবে এপটি আরও সমৃদ্ধ হবে এবং একই সাথে আপনার এলাকায় খাবারের সম্ভার বিশ্ব মানুষের কাছে পৌঁছে দেবার সুযোগ হবে। আর কন্ট্রিবিউট করার জন্য আপনি পেতে পারেন পয়েন্ট ও ব্যাজ।

২০১০ সালে এপটি যাত্রা শুরু করেছে এবং এখন পর্যন্ত প্রায় ২.৫ মিলিয়ন ভিন্ন ভিন্ন জিভে পানি আনা খাবারের সন্ধান করেছে এই এপটি। আশা করা যায় বিদেশে গেলে কাজে আসবে!

Aviation News