গুয়াংজুতে চালু হচ্ছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ফ্লাইট

এই লেখাটি 1118 বার পঠিত

biman cargoঢাকা থেকে চীনের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ বাণিজ্যিক নগরী গুয়াংজুতে ফ্লাইট চালু করতে যাচ্ছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স। ২০১৮ সালের মার্চেই শুরু হবে এই যাত্রা। দু’দেশের বাণিজ্যিক যোগাযোগ আরও সহজ করতে বিমানের এই উদ্যোগ। বিশেষজ্ঞদের মতে, সমুদ্র বন্দরের অবস্থানের কারণে চট্টগ্রাম থেকে কার্গো ফ্লাইট চালু করা হলে তা বিমানের জন্য লাভজনক হবে। অন্যদিকে রপ্তানির বিষয়টি মাথায় রেখে ইউরোপের বেশকিছু গন্তব্যে বিমানের নতুন ফ্লাইট চালুর দাবি জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা।

বাংলাদেশের গুরুত্বপূর্ণ বাণিজ্যিক অংশীদার চীন। দেশটি থেকে বছরে প্রায় ১ হাজার কোটি ডলারের পণ্য আমদানি করে বাংলাদেশ। পোশাক শিল্পসহ বিভিন্ন খাতের ব্যবসায়ীদের নিয়মিত আসা-যাওয়া রয়েছে চীনে। তাই দেশটির সাথে বাংলাদেশ বিমানের ফ্লাইট চালুর দাবিও দীর্ঘদিনের। অবশেষে ঢাকা গুয়াংজু রুটে যাত্রা শুরু করতে যাচ্ছে বিমান। যাত্রীর পাশাপাশি পণ্য পরিবহনেও এই রুটে উজ্জ্বল সম্ভাবনা দেখছে বিমান।

বাংলাদেশ বিমানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শাকিল মেরাজ বলেন, চীনের সঙ্গে আমাদের আমদানি-রফতানির ভলিয়ম বিশাল। এই দিক বিবেচনা করে আগামী ২৫ মার্চের মধ্যে চীনের গুয়াংজুতে ফ্লাইট পরিচালনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এছাড়া সপ্তাহে তিনটি বোয়িং ৭৩৭ ফ্লাইট পরিচালনার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

একইসঙ্গে বন্দরের অবস্থানকে কাজে লাগিয়ে চট্টগ্রাম থেকে গুয়াংজু রুটে কার্গো ফ্লাইট চালু করা গেলে বিমানের ভালো ব্যবসা হবে বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা।

বাংলাদেশ বিমানের সাবেক পরিচালক নাফিস ইমতিয়াজ উদ্দিন বলেন, সম্ভাবনাময় যে দিকটা আমরা দেখতে পাই সেটা হচ্ছে ডেডিকেটেড কার্গো ফ্লাইট, যেমনটা সিঙ্গাপুর এয়ারলাইন্স করে থাকে। এ জায়গা থেকে প্রচুর আয়ের সুযোগ রয়েছে।

এক সময় ইউরোপের ফ্রান্স, জার্মানি, বেলজিয়াম , ইতালি, গ্রীস ও নেদারল্যান্ডে বিমানের ফ্লাইট থাকলেও ১৯৯৮ সাল থেকে পর্যায়ক্রমে সেগুলো বন্ধ হয়ে যায়। এ অবস্থায় রপ্তানির সবচেয়ে বড় বাজার ইউরোপের গুরুত্বপূর্ণ গন্তব্যে বিমানের ফ্লাইট আবারও চালুর দাবি জানিয়ে এক্সপোটার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের সহ-সভাপতি মো. হাতেম বলেন, প্যারিস না হোক ইউরোপের অন্য যেকোনো একটা রুটে বাংলাদেশ বিমানের যেকোনো একটা কার্গো ফ্লাইট চালু হওয়া জরুরি। বিশেষ করে তৈরি পোশাক খাতের বড় বাজারটাই ইউরোপের।

২০১৩ সালে মিয়ানমারের ইয়াঙ্গুনে সর্বশেষ আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চালু করেছিল বিমান। কর্তৃপক্ষ জানায়, মালদ্বীপের মালে ও শ্রীলঙ্কার কলম্বো রুটেও ফ্লাইট চালানোর লক্ষ্যে দুটি বোয়িং লিজ নেয়ার প্রক্রিয়া চলছে।

সূত্রঃ সময় নিউজ ডট টিভি

Aviation News