খাবারের টাকা নিতে নারাজ ইন্ডিগো এয়ারলাইন্স

এই লেখাটি 386 বার পঠিত

Indigo-580x395খাবারের দাম মেটানোর জন্য এক যাত্রী ভারতীয় মুদ্রা দিতে চাইলেও, সেটা নিতে অস্বীকার করার অভিযোগ উঠল ভারতীয় বেসরকারি বিমান সংস্থা ইন্ডিগোর বিরুদ্ধে। প্রমোদ কুমার জৈন নামে ওই যাত্রীর অভিযোগ, গত ১০ অক্টোবর তিনি বেঙ্গালুরু থেকে দুবাই যাচ্ছিলেন। সকাল ৭.২০ মিনিটে বিমানে চড়েন তিনি। প্রাতঃরাশ না করায় বিমানেই খেয়ে নেবেন ভেবেছিলেন। কিন্তু বিমানের কর্মীরা ভারতীয় মুদ্রা নিতে অস্বীকার করেন।

সোমবার দুবাই থেকে দেশে ফেরার পর দিল্লির সরোজিনী নগর নগর থানায় ইন্ডিগোর বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন প্রমোদ। তিনি বলেছেন, ‘ইন্ডিগো একটি ভারতীয় সংস্থা। আমিও ভারতীয়। তাই টাকা দিতে চেয়েছিলাম। কিন্তু কেবিন ক্রু ভারতীয় মুদ্রা নিতে অস্বীকার করেন। অপর এক যাত্রীর সঙ্গেও একই আচরণ করা হয়েছে।’

ইন্ডিগো কর্তৃপক্ষ অবশ্য প্রমোদের অভিযোগ অস্বীকার করেছে। সংস্থার পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে দাবি করা হয়েছে, আন্তর্জাতিক উড়ানে টাকা নেওয়া হয় না। বিদেশি মুদ্রা বিনিময় আইনেই এ কথা স্পষ্টভাবে বলা আছে। তাই টাকা নিয়ে তাদের পক্ষে আইনভঙ্গ করা সম্ভব নয়। রিজার্ভ ব্যাঙ্ককে ২০১৪ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি ও ৫ জুন অনুরোধ করা হয়েছিল, আন্তর্জাতিক উড়ানে ২৫,০০০ টাকার বেশিমূল্যের পণ্য বিক্রির ক্ষেত্রে টাকা নেওয়ার অনুমতি দেওয়া হোক। কিন্তু এখনও সেই অনুমতি পাওয়া যায়নি। এ বিষয়ে এখনও আলোচনা চলছে।

গত মাসেই এক বয়স্ক যাত্রীকে হেনস্থার অভিযোগ উঠেছিল ইন্ডিগোর এক গ্রাউন্ড স্টাফের বিরুদ্ধে। এ মাসের শুরুতেই লখনউ বিমানবন্দরে হুইলচেয়ারে থাকা এক যাত্রীকে শর্টকাটে টার্মিনাল বিল্ডিংয়ে নিয়ে যাওয়ার সময় ফেলে দেন ইন্ডিগোর এক কর্মী। ১৯ তারিখ দিল্লির এক মহিলা আইনজীবী অভিযোগ করেন, গুয়াহাটি বিমানবন্দরে ইন্ডিগোর কর্মীরা তাঁর মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেন এবং ব্যাগ বারবার স্ক্যান করার ছবি মুছে দেন। একের পর এক অভিযোগের জেরে কয়েকজন কর্মীকে সাসপেন্ড করেছে ইন্ডিগো। তবে তাতেও এই সংস্থার বিরুদ্ধে অভিযোগ বন্ধ হচ্ছে না।

Aviation News