বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সে যুক্ত হচ্ছে ৪টি এয়ারক্রাফট

এই লেখাটি 1249 বার পঠিত

biman dasবিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স দেশের অভ্যন্তরীণ ৭টি রুটে ফ্লাইট সংখ্যা বাড়ানোর মাধ্যমে বিমানের যাত্রী সেবা নিশ্চিত করতে বিমানের বহরে আরো ৪টি এয়ারক্রাফট যুক্ত করার প্রক্রিয়া শুরু করেছে।
৪টি এয়ারক্রাফটের মধ্যে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ৩টি ড্যাশ ৮ কিউ ৪০০ এয়ারক্রাফট ক্রয় করবে এবং একটি কানাডার বোম্বারডিয়ার থেকে ভাড়ায় সংগ্রহ করবে।
বিমানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং সিইও মোসাদ্দেক আহমেদ বলেন, ‘আমরা আশা করছি আভ্যন্তরীণ রুটে ফ্লাইট সংখ্যা বৃদ্ধির জন্য আগামী বছরে এয়ারক্রাফটগুলো পাবো।’
বর্তমানে বিমান দুইটি ড্যাশ ৮ কিউ ৪০০ এয়ারক্রাফটের মাধ্যমে বিমানের আভ্যন্তরীণ ও আঞ্চলিক রুট পরিচালনা করা হচ্ছে। এই এয়ারক্রাফট দুইটি ২০১৫ সালে পাঁচ বছরের জন্য ভাড়ায় সংগ্রহ করা হয়।
আহমেদ বলেন, ‘বর্তমান লিজ চুক্তির মেয়াদ ২০২০ সালে শেষ হবে। এ জন্য আভ্যন্তরীণ ও আঞ্চলিক রুটে ফ্লাইট পরিচালনা অব্যাহত রাখতে আমাদের আরো ছোট আকারের এয়ারক্রাফট প্রয়োজন।’
বিমানের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা জানান, কানাডিয়ান কমার্শিয়াল কোম্পানি ইতোমধ্যেই সরকার টু সরকার (জিটুজি) ক্রয় ভিত্তিতে আরো ৩টি এয়ারক্রাফট ক্রয়ের প্রস্তাব বেসামরিক বিমান ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ে উপস্থাপন করেছে। এক্সপোর্ট ডেভালপমেন্ট কানাডা (ইডিসি) এয়ারক্রাফট ক্রয়ে তহবিল সরবরাহের প্রস্তাব দিয়েছে।
বেসামরিক বিমান ও পর্যটন মন্ত্রণালয় তিনটি এয়ারক্রাফট ক্রয়ে দ্রুত অনুমোদনের জন্য জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটিতে (একনেক) প্রস্তাব পাঠিয়েছে।
বিমানে জেনারেল ম্যানেজার জনসংযোগ শাকিল মিরাজ বলেন, এয়ারক্রাফট সংকটের কারণে আভ্যন্তরীণ রুটে বিমানের ফ্লাইড সিডিউল বজায় রাখা কঠিন হয়ে পড়েছে।
তিনি বলেন, এয়ারক্রাফট সংগ্রহের পরে আমরা আভ্যন্তরীণ এবং আঞ্চলিক বিভিন্ন রুটে ফ্লাইট সংখ্যা বৃদ্ধি সেবার মান উন্নয়নে সক্ষম হবো।
বিমান বর্তমান ড্যাশ ৮ কিউ ৪০০ এয়ারক্রাফটের মাধ্যমে ৭টি আভ্যন্তরীণ এবং কয়েকটি আঞ্চলিক রুটে ফ্লাইট পরিচালনা করছে।
আভ্যন্তরীণ রুটগুলো হলো- ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, সিলেট, যশোর, রাজশাহী, সৈয়দপুর এবং বরিশাল। আঞ্চলিক রুটগুলো হলো- কলকাতা, কাঠমান্ডু এবং ইয়াংগুন।

সূত্রঃ বাসস

Aviation News