শিগগিরই ঘোষণা করা হবে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের নির্ধারিত স্থান

এই লেখাটি 539 বার পঠিত

airportসম্ভাব্যতা সমীক্ষা শেষে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর স্থাপনের জন্য স্থান নির্ধারণ করা হয়েছে। শিগগিরই এ বিষয়ে ঘোষণা দেয়া হবে। গতকাল জাতীয় সংসদ ভবনে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির বৈঠকে এ তথ্য জানানো হয়। বৈঠকে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) প্রধান কার্যালয় নির্মাণ প্রকল্পের কাজ নির্ধারিত সময়ের মধ্যে শেষ না হওয়ায় তা তদন্ত করে সংস্থার চেয়ারম্যানকে প্রতিবেদন দেয়ার জন্য সুপারিশ করা হয়েছে।

বৈঠক শেষে কমিটির সভাপতি মুহাম্মদ ফারুক খান সাংবাদিকদের জানান, বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর স্থাপনের জন্য পদ্মা নদীর ওপারে স্থান নির্ধারণ করা হয়েছে। শিগগিরই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ বিষয়ে ঘোষণা দেবেন।

প্রসঙ্গত, সরকারি-বেসরকারি অংশীদারিত্বের (পিপিপি) আওতায় প্রথম প্রকল্প হিসেবে ২০১০ সালের আগস্টে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর নির্মাণ প্রকল্পে নীতিগত অনুমোদন দেয় মন্ত্রিসভা। পরবর্তীতে পিপিপি থেকে সরে এসে নিজস্ব অর্থায়ন ও দাতা সংস্থার সহায়তায় দেশের সবচেয়ে বড় ও আধুনিক এ বিমানবন্দর নির্মাণের উদ্যোগ নেয় সরকার। মন্ত্রিসভায় নীতিগত অনুমোদন দেয়ার সময় প্রকল্পটির বাস্তবায়নকাল ধরা হয়েছিল ২০১০ থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত। ব্যয় ধরা হয়েছিল ৫০ হাজার কোটি টাকা।

কমিটির সভাপতি মুহাম্মদ ফারুক খানের সভাপতিত্বে বৈঠকে আরো উপস্থিত ছিলেন— কমিটির সদস্য বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন, মো. আলী আশরাফ, মো. নজরুল ইসলাম চৌধুরী, কামরুল আশরাফ খান, মো. আফতাব উদ্দিন সরকার ও বেগম সাবিহা নাহার।

সূত্রঃ বণিক বার্তা

Aviation News