সব হজযাত্রী পরিবহনে অতিরিক্ত স্লটের অনুমোদন পায়নি বিমান

এই লেখাটি 254 বার পঠিত

Biman-Bangladesh-Airlinesএভিয়েশন নিউজঃ হজযাত্রী পরিবহনে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ২৬ আগস্টের পরে অতিরিক্ত ১২ ফ্লাইট পরিচালনার জন্য সৌদি আরবে আবেদন করে এখনও অনুমোদন পায়নি। হজফ্লাইট পরিচালনায় পূর্ব-নির্ধারিত সময় ২৬ আগস্টের পর এই ১২টি স্লট ব্যবহারের জন্য আবেদন করে বিমান। তবে ২৬ আগস্টের মধ্যে ব্যবহারের জন্য আরও ২টি ফ্লাইট পরিচালনার অনুমোদন পেয়েছে বিমান। অতিরিক্ত স্লট বরাদ্দ পেলে হজযাত্রীদের সৌদি আরব যাত্রা নিয়ে কোনও সংকট থাকবে না। বিমানের মহাব্যবস্থাপক (জনসংযোগ) শাকিল মেরাজ এই তথ্য জানান।

বিমান সূত্র জানায়, হজ পরিচালনার জন্য ২০৩টি ফ্লাইটের মধ্যে ১৪২টি ফ্লাইট পরিচালনা করেছে বিমান। বাতিল হয়েছে ২৪টি হজ ফ্লাইট। বাকি রয়েছে ৩৭টি হজ ফ্লাইট। এই ৩৭টি হজ ফ্লাইটে ১৪ হাজার ৪২জন হজ যাত্রী পরিবহন করতে পারবে বিমান। বিমানের পরিচালিত ১৪২টি ফ্লাইটে ৪৭ হাজার ৭৯৫ জন যাত্রী সৌদি আরবে গিয়েছেন। ২৬ আগস্টের মধ্যে ব্যবহারের জন্য অনুমোদন পাওয়া ২টি ফ্লাইট পরিচালনা করতে পারলে যেতে পারবেন আরও ৮৩৮ জন হজযাত্রী। বাতিল হওয়া ২৪টি হজ ফ্লাইটের যাত্রীসহ বিভিন্ন কারণে ১৪ হাজার ৭৬৩ জন হজ যাত্রী বিমানে যেতে পারেননি।

এ বছর ১ লাখ ২৭ হাজার ১৯৮জন হজে যাওয়ার জন্য নিবন্ধন সম্পন্ন করেছিলেন। মঙ্গলবার সকাল ৯ টা পর্যন্ত সৌদি আরব গিয়েছেন ৯৪ হাজার ৪১০জন হজযাত্রী। ৯৯৩ জন হজযাত্রীর ভিসার আবেদন জমা দেয়নি হজ এজন্সিগুলো। বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ২২ আগস্ট থেকে ২৬ আগস্ট ৩৮টি হজফ্লাইট পরিচালনা করবে। যদিও ২৮ তারিখ পর্যন্ত ফ্লাইট পরিচালনার জন্য সৌদি আরবের কাছে আবেদন করলেও অনুমতি পায়নি বিমান। ২৬ আগস্ট পর্যন্ত ফ্লাইট পরিচালনা করলে বিমানের পক্ষে দেড় হাজার হজযাত্রীকে পরবহন করা সম্ভব হবে না।

এ প্রসঙ্গে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের মহাব্যবস্থাপক (জনসংযোগ) শাকিল মেরাজ এভিয়েশন নিউজকে বলেন, ‘ সব যাত্রী পরিবহনের জন্য সৌদি আরবের কাছে অতিরিক্ত ফ্লাইট পরিচালনার অনুমতি চাওয়া হয়েছে। সে বিষয়ে ইতিবাচক কোনও সাড়া পাওয়া যায়নি। তবে আমরা আশা করছি, আগামীকাল বিকাল নাগাদ তথ্য পেতে পারি।’

Aviation News