নিয়মিত ফ্লাইট কাটছাঁট করেও কুলাতে পারছেনা বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস

এই লেখাটি 615 বার পঠিত

bimanহজযাত্রী পরিবহনে শেষ সময়ের চাপ সামাল দিতে আজ সোমবার থেকে ২৬ আগস্ট পর্যন্ত বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস লন্ডন ও দোহা গন্তব্যের ফ্লাইট বাতিল করেছে। এ ছাড়া বিভিন্ন আন্তর্জাতিক গন্তব্যে ছোট উড়োজাহাজ পাঠিয়ে বড় উড়োজাহাজগুলো হজ ফ্লাইটে যুক্ত করা হচ্ছে। এরপরও প্রায় চার হাজার যাত্রীর জন্য আসন সংকট (ক্যাপাসিটি শর্ট) রয়েছে বলে জানিয়েছে বিমান কর্তৃপক্ষ।

সৌদি দূতাবাসে হজযাত্রীদের ভিসার জন্য পাসপোর্ট জমা দেওয়ার শেষ তারিখ আগামী বৃহস্পতিবার। ভিসা পাওয়ায় যাতে সমস্যা না হয়, সে জন্য এজেন্সিগুলোকে গতকাল রোববারের মধ্যে আশকোনার হজ কার্যালয়ে পাসপোর্ট জমা দিতে নির্দেশ দিয়েছিল ধর্ম মন্ত্রণালয়। কিন্তু গতকাল পর্যন্ত প্রায় ২০ হাজার পাসপোর্ট জমা দেয়নি এজেন্সিগুলো। এর ফলে এসব যাত্রীর ভিসা পাওয়া নিয়ে আরেকটি জটিলতার আশঙ্কা করছেন সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা।

এদিকে হজযাত্রীরা যাতে সময়মতো হজে যেতে পারেন, সে জন্য সৌদি দূতাবাসের সঙ্গে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে যোগাযোগ করতে ও ভিসা জটিলতা দূর করতে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। গতকাল হাইকোর্টের একটি দ্বৈত বেঞ্চ এক রিট আবেদনের প্রাথমিক শুনানি শেষে রুলসহ এ আদেশ দেন। রুলে হজে অব্যবস্থাপনার কারণ ও দায়ী ব্যক্তিদের চিহ্নিত করতে চার সদস্যবিশিষ্ট কমিশন গঠনের কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না, তা জানতে চাওয়া হয়েছে।

গতকাল বিমান বাংলাদেশের প্রধান কার্যালয় বলাকায় বিমানের মহাব্যবস্থাপক (জনসংযোগ) শাকিল মেরাজ সাংবাদিকদের বলেন, হজ এজেন্সিগুলো সময়মতো হজযাত্রীদের ভিসা ও বাড়িভাড়া করেনি। এর ফলে শুরুর দিকে যাত্রী সংকটের কারণে একের পর এক ফ্লাইট বাতিল করতে হয়েছে। এখন আগামী ১৪ দিনে ৬৭ হাজার হজযাত্রীকে সৌদি আরবে পৌঁছাতে হবে। এর মধ্যে প্রায় ৩৫ হাজার যাবেন বিমানে।

বিমানের মহাব্যবস্থাপক বলেন, এ অবস্থায় হজ ফ্লাইট বাড়ানোর জন্য ২৬ আগস্ট পর্যন্ত ঢাকা-দোহা গন্তব্যের সব ফ্লাইট (পাঁচটি ফ্লাইট) বাতিল করেছে বিমান। ঢাকা-লন্ডন গন্তব্যের সাপ্তাহের চারটি ফ্লাইট কমিয়ে তিনটি করা হয়েছে। দুবাই, মাসকট, কুয়ালালামপুরে বেশি আসনের উড়োজাহাজের বদলে কম আসনের উড়োজাহাজ পাঠানো হচ্ছে। ওই ফ্লাইটের বড় উড়োজাহাজগুলো হজ ফ্লাইটে ব্যবহার করা হচ্ছে। তিনি বলেন, নিয়মিত ফ্লাইট কাটছাঁট করার ফলে ওই সব নিয়মিত ফ্লাইটের যাত্রীদের ভোগান্তিতে পড়তে হবে। তারপরও ৩ হাজার ৯৩১ জন হজযাত্রীর ‘ক্যাপাসিটি শর্ট’ রয়েছে।

বিমান সূত্র জানায়, পরিস্থিতি সামাল দিতে বিমান কর্তৃপক্ষ সৌদি আরবের কাছে আবেদন করে ১৪টি অতিরিক্ত স্লট (হজ ফ্লাইট অবতরণের অনুমতি) পায়। এই ১৪টি অতিরিক্ত স্লটের একটি ফ্লাইট ছিল গতকাল। সেটিও যাত্রী সংকটের কারণে ৪৮ ঘণ্টা পেছাতে হয়েছে। এর আগে গত শনিবারও যাত্রী না পাওয়ায় অতিরিক্ত স্লটের একটি ফ্লাইট পিছিয়ে ১৯ আগস্ট নিয়েছে বিমান। এখন নতুন করে আরও ৮টি অতিরিক্ত স্লটের জন্য সৌদি কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন করেছে। আজকালের মধ্যে এই ব্যাপারে সিদ্ধান্ত পাওয়ার আশা করছে বিমান।

ধর্ম মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, আগামী বৃহস্পতিবারের পর সৌদি দূতাবাস হজ ভিসার জন্য আর পাসপোর্ট জমা নেবে না। হজযাত্রীদের ভিসা প্রাপ্তিতে যাতে সমস্যা না হয়, সে জন্য ধর্ম মন্ত্রণালয় গত শুক্রবার এক বিজ্ঞপ্তিতে এজেন্সিগুলোকে গতকালের (১৩ আগস্ট) মধ্যে ভিসার ‘ডিও ইস্যুর’ জন্য আশকোনায় পরিচালকের (হজ) কার্যালয়ে পাসপোর্ট জমা দিতে নির্দেশ দেয়। এই সময়ের মধ্যে পাসপোর্ট জমা দিতে ব্যর্থ হলে সংশ্লিষ্ট এজেন্সির লাইসেন্স বাতিল, জামানত ও হজযাত্রীদের অনুকূলে জমা করা বিমান ভাড়া বাজেয়াপ্ত করা হবে বলে বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়।

গতকাল বেলা সোয়া একটায় আশকোনার হজ কার্যালয়ে পরিচালক (হজ) সাইফুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, ‘এখন পর্যন্ত ২০ হাজার পাসপোর্ট এজেন্সিগুলো জমা দেয়নি। আশা-নিরাশার দোলাচলে আমাদের দিন অতিক্রম করতে হচ্ছে।’ সন্ধ্যায় ধর্ম মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, ভিসার জন্য গতকাল শেষ সময় পর্যন্ত পাসপোর্ট জমা দেয়নি এমন ১৬টি এজেন্সিকে আজ সোমবার আশকোনার হজ কার্যালয়ে উপস্থিত থাকতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এবার বাংলাদেশ থেকে হজ করতে যাবেন মোট ১ লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ জন। গতকাল সৌদি এয়ারলাইনসের তিনটি ও বাংলাদেশ বিমানের চারটি ফ্লাইটে ২ হাজার ৮৯৫ জন হজযাত্রী সৌদি আরবে গেছেন। এ নিয়ে গতকাল পর্যন্ত ৫৯ হাজার ১২২ জন সৌদি আরবে পৌঁছেছেন। বাকি আছেন ৬৮ হাজার ৭৬ জন। এখন ভিসাযুক্ত পাসপোর্ট নিয়ে যাত্রার অপেক্ষায় আছেন প্রায় ৪৭ হাজার।

বাংলাদেশ থেকে হজযাত্রী পরিবহন শুরু হয় গত ২৪ জুলাই। শুরুর দিকে পর্যাপ্ত যাত্রী না পাওয়ায় গত ১৬ দিনে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস ও সৌদি এয়ারলাইনসের ২৭টি হজ ফ্লাইট বাতিল বা পেছানো হয়েছে। ২৬ আগস্ট বিমান ও ২৭ আগস্ট সৌদি এয়ারলাইনস ঢাকা থেকে শেষ প্রাক্‌-হজ ফ্লাইট পরিচলনা করবে।

সূত্রঃ প্রথম আলো

Aviation News