ত্রাণ ফ্লাইটের জন্য চার বিমানবন্দর প্রস্তুত : বেবিচক

এই লেখাটি 177 বার পঠিত

indexdনেপালে ত্রাণবাহী দেশি-বিদেশি ফ্লাইট অবতরণের জন্য ঢাকা, চট্টগ্রাম, সিলেট ও সৈয়দপুর বিমানবন্দরকে সার্বক্ষণিকভাবে প্রস্তুত রাখা হয়েছে। বিমানবন্দরগুলোতে ত্রাণবাহী ফ্লাইট পরিষেবার পাশাপাশি জ্বালানি তেল সরবরাহেরও সুবিধা রাখা হয়েছে। মানবিক দিক বিবেচনায় এসব ফ্লাইটকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দেওয়া হচ্ছে।

বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক) সূত্র জানায়, নেপালগামী যাত্রীবাহী ফ্লাইট চলাচলের সুবিধার্থে ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে খোলা হয়েছে একটি পর্যবেক্ষণ সেল। নেপালের কাঠমাণ্ডু বিমানবন্দরে স্থান স্বল্পতার কারণে এরই মধ্যে বিভিন্ন দেশের ত্রাণ ও যাত্রীবাহী ফ্লাইট ঢাকাসহ আশপাশের বিমানবন্দরে অবতরণ করছে। কাঠমাণ্ডুতে অবতরণে ব্যর্থ হয়ে কিংবা জ্বালানি তেল নিতে শাহজালাল বিমানবন্দরে এখন পর্যন্ত ৩৬টি দেশি-বিদেশি ফ্লাইট অবতরণ করেছে। এসব ফ্লাইটের মোট তিন হাজার ১৬৮ জন যাত্রীকে পরিষেবা দেওয়া হয়েছে।

বেবিচকের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, শাহজালাল বিমানবন্দরে এ পর্যন্ত মোট সাতটি ত্রাণ ফ্লাইট পরিচালিত হয়েছে। ২৬ এপ্রিল বাংলাদেশের প্রথম ত্রাণ ফ্লাইট পরিচালনা করে বিমানবাহিনী। ফ্লাইটটিতে প্রায় ১০ টন অত্যাবশ্যকীয় ত্রাণসামগ্রী পাঠানো হয়। এ ফ্লাইটে ১৮ সদস্যবিশিষ্ট সামরিক বাহিনীর মেডিক্যাল টিম ও কয়েকজন জরুরি উদ্ধারকর্মী নেপাল যান। বিমানবাহিনী এ পর্যন্ত মোট দুটি ত্রাণ ফ্লাইট পরিচালনা করেছে।

Aviation News