যারাই চক্রান্ত করবে তাদের কঠোর হাতে দমন করা হবে: যুক্তরাষ্ট্র জাসদের আলোচনা সভায় বক্তারা

এই লেখাটি 180 বার পঠিত

USA JASADযুক্তরাষ্ট্র অফিস: জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদ যুক্তরাষ্ট্র শাখা আয়োজিত স্বাধীনতা দিবসের আলোচনা সভায় বক্তারা বলেছেন, শুধু জামায়াত-শিবির নয়, যারাই বাংলাদেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্ব নিযে চক্রান্ত করবে তাদের কঠোর হাতে দমন করা হবে। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাংলার মাটিতে যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের অঙ্গীকার করেছিলেন। বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা সেই অঙ্গীকারের বাস্তবায়ন করছেন। বক্তারা বলেন, ৪৪ বছর পরও চক্রান্ত থেমে নেই। স্বাধীনতাবিরোধীদের চক্রান্ত রুখে দিতে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তির ঐক্যের বিকল্প নেই। খুব শিগগির অন্যান্য যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের রায় কার্যকরের মাধ্যমে বাঙালী জাতিকে কলঙ্কমুক্ত করতে হবে।
স্থানীয় সময় রবিবার সন্ধ্যায় নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমান। যুক্তরাষ্ট্র জাসদের সভাপতি আব্দুল মোসাব্বিরের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক নূরে আলম জিকুর সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদুর রহমান সাজ্জাদ, সহ-সভাপতি শামসুদ্দিন আজাদ, যুগ্ম সম্পাদক আব্দুস সামাদ আজাদ, সাংগঠনিক সম্পাদক ফারুক আহমেদ প্রমূখ।
আলোচনা সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন যুক্তরাষ্ট্র জাসদের নেতা শাহান খান, লিয়াকত আলী, যুক্তরাষ্ট্র জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক আবু তালেব চৌধুরী, মুক্তিযোদ্ধা নাজমুল ইসলাম চৌধুরী, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের নেতা হাকিকুল খোকন, শাহানারা রহমান, সোলায়মান আলী, সিরাজউদ্দিন সোহাগ, হেলাল মাহমুদ, যুক্তরাষ্ট্র শ্রমিক লীগ সভাপতি কাজী আজিজুল হক খোকন, স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় নেতা সাখাওয়াত বিশ্বাস, যুক্তরাষ্ট্র ছাত্রলীগ সভাপতি জেড এ জয়, গণজাগরণ মঞ্চ নিউইয়র্কের আহ্বায়ক মিনহাজ আহম্মেদ প্রমূখ।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড. সিদ্দিকুর রহমান বলেন, বিএনপি-জামায়াত জোট আন্দোলনে ব্যর্থ হয়ে ঘরে ফিরে গেছে। কিন্তু তাদেদর ষড়যন্ত্র অব্যাহত রয়েছে। তাই এই মুহূর্তে আমাদের অতীতের মত ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে। তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের মাটিতে বাংলাদেশের ভবিষ্যত নেতা সজিব ওয়াজেদ জয়ের বিরুদ্ধে অনেক ষড়যন্ত্র হয়েছে। কিন্তু আমরা ঐক্যবদ্ধ থাকায় বিএনপি-জামায়াত জোটের অপচেষ্টা ব্যর্থ হয়েছে।
আলোচনা সভায় অন্যান্য বক্তারা বলেন, আওয়ামী লীগে অনেক সুবিধাভোগী লোক রয়েছে যারা দলের দুর্দিনে দূরে সরে যায়। এসব সুবিধাভোগীদের চিহ্নিত করার সময় এসেছে।
আলোচনা সভায় একাত্তরের যুদ্ধাপরাধী আল-বদর বাহিনীর কমান্ডার কামারুজ্জামানের ফাঁসি কার্যকর করায় স্বস্তি প্রকাশ করা হয়।

Aviation News