দ্রুতগামি কনকর্ডের মতো ফেটে গেল বিমানের চাকা (ভিডিও সহ)

এই লেখাটি 1421 বার পঠিত

cakaএয়ার ফ্রান্সের সেই দ্রুতগামি কনকর্ড ক্র্যাশের মতো ঘটনা ঘটতে পারতো মাসকট থেকে আসা বোয়িং ৭৩৭ এয়ারক্রাফটের। কিন্তু পাইলটের দক্ষতায় ১৪৯ জন যাত্রী নিশ্চিত মৃত্যু থেকে রক্ষা পান। কনর্ডড ক্র্যাশর ঘটনায়ও ফ্লাইটটি এভাবে উড্ডয়নের সময়চাকা ফেটে যায়।  এরপর চাকার একটি অংশ গিয়ে তেলের ট্যাংকে আঘাত করে। সংগে সংগে বিমানে আগুন ধরে যায়। বৃহস্পতিবারও বিমানের ফ্লাইটটি মাসকট থেকে উড্ডয়নের সময় পেছনের একটি চাকা বিকট শব্দে ফেটে যায়। পরবর্তীতে ফ্লাইটটি নির্ধারিত গন্তব্য চট্টগ্রামে না গিয়ে ঢাকায় জরুরী অবতরণ করে। অবশ্য তার আগেই বিমানবন্দর কতৃপক্ষ অ্যাম্বুলেন্স, ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি প্রস্তুত রাখে।এতে কিছু ফ্লাইটের ওঠানামায় দেরী হলেও বড় কোন দুর্ঘটনা ঘটেনি।

চাকা ফেটে যাওয়ায় বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি উড়োজাহাজ হযরত শাহজালাল বিমানবন্দরে জরুরি অবতরণ করেছে। বিমানের বোয়িং ৭৩৭ উড়োজাহাজের সামনের একটি চাকা বিস্ফোরিত হয়ে ফেটে যাওয়ায় এ এঘটনা ঘটে। বৃহস্পতিবার সকাল ১০টা ৭ মিনিটে উড়োজাহাজটি জরুরি অবতরণ করে বলে নিশ্চিত করেছেন বিমানবন্দরের পরিচালক কাজী ইকবাল করিম।

বিমান সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার ভোর ৪টা ৪৮ মিনিটের দিকে মাস্কাট থেকে চট্টগ্রামের উদ্দেশে যাত্রা করে বিমানের বিজি-১২২ ফ্লাইট। বিমানটিতে ১৪৯ জন যাত্রী ও সাত জন কেবিন ক্রু ছিল। দেশে ফেরার সময় পাইলট লক্ষ্য করেন উড়োজাহাজের একটি চাকা বিস্ফোরিত হয়েছে। এ সময় তিনি বিমানের কন্ট্রোল রুমে যোগাযোগ করেন। এ অবস্থায় জরুরি অবতরণের সকল সুবিধা শাহজালালে থাকায় চট্টগ্রামে না গিয়ে ঢাকার দিকে ফিরে আসে উড়োজাহাজটি। নিরাপদে অবতরণের জন্য জ্বালানি তেল কমাতে উড়োজাহাজটিকে অতিরিক্ত সময় আকাশে ওড়ানো করা হয়। এছাড়া বিমানের প্রকৌশলীরা রান ওয়েতে গিয়ে অবস্থান নেন এবং পাইলট দুবার লো ফ্লাই করেন। পরবর্তীতে নিরাপদে বিমানটি শাহজালালে অবতরণ করে।
এ প্রসঙ্গে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের জেনারেল ম্যানেজার শাকিল মেরাজ বলেন, ‘উড়োহাজাজটি নিরাপদে অবতরণ করেছে। বিমানের সকল যাত্রী অক্ষত রয়েছেন।’
এ ঘটনার পর বিমানবন্দরটিতে সব ফ্লাইট ওঠানাম‍া বন্ধ ছিলো। তবে বেলা ১২টা ২০ মিনিট থেকে ফ্লাইট ওঠানামা স্বাভাবিক হয় বলে জানা গিয়েছে।

এর আগে গত ১২ ডিসেম্বর যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি উড়োজাহাজ মিয়ানমারের উদ্দেশে যাত্রা করে ঢাকায় ফিরে আসে। পরবর্তীতে ত্রুটি মেরামত শেষে ফের মিয়ানমারের উদ্দেশে যাত্রা করে বিমানটি। এছাড়া, গত ২৭ নভেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বহনকারী বাংলাদেশ বিমানের একটি উড়োজাহাজ যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে তুর্কমেনিস্তানে জরুরি অবতরণ করে। উড়োজাহাজটি হাঙ্গেরির উদ্দেশে ঢাকা ত্যাগ করেছিল।

 

 

Aviation News