হজের ১০ হাজার টিকিট কালোবাজারিদের হাতে

এই লেখাটি 257 বার পঠিত

downloadসৌদি এরাবিয়ান এয়ারলাইন্সের হজ ফ্লাইটের ১০ হাজার টিকিট এবারো কালোবাজারিদের হাতে। এসব টিকিটে হজযাত্রীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করা হচ্ছে। তবে অভিযোগ পেয়ে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন জানালেন, হজ চলাকালেই ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এবার বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় হজযাত্রীদের টিকিট পাওয়ার কথা ১ লাখ ২১ হাজারের মধ্যে। কিন্তু সাধারণভাবে হজের টিকিট কিনতে হচ্ছে ১ লাখ ২৬ হাজার টাকায়। সে হিসেবে প্রায় ৫ হাজার টাকা বেশি নেওয়া হচ্ছে হজ প্রত্যাশীদের কাছ থেকে। যদিও এর বিষয়ে সুর্দিষ্ট কোনো অভিযোগ যায়নি বেসরকারি বিমান পরিবহন ও পর্যটন বা ধর্ম মন্ত্রণালয়ে।

তবে অভিযোগ পাওয়া গেছে, সৌদি এরাবিয়ান এয়ারলাইন্সের সিন্ডিকেট টিকিট প্রতি ২০ হাজার টাকা করে অতিরিক্ত আদায় করছে হজযাত্রীদের কাছ থেকে। সিন্ডিকেটের প্রধান দুই এজেন্সি কাজী এয়ার ইন্টারন্যাশনাল ও সানশাইন এক্সপ্রেসের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে জোরেশোরে। এছাড়া অভিযোগে রয়েছে আরো ৩ থেকে ৪টি এজেন্সির বিরুদ্ধে।

অভিযোগের বিষয়ে বৃহস্পতিবার (০৪ আগস্ট) হযরত শাহজালাল বিমানবন্দরে হজ ফ্লাইট উদ্বোধনের প্রথম দিন সকালে বেসরকারি বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন জানালেন, ১৩/১৪ হাজার টাকা করে বেশি নিচ্ছে ৪/৫টি এজেন্সি। হজ চলাকালেই আমরা এটি সমাধানের ব্যবস্থা নেবো। যদিও ইতোমধ্যেই ১০ হাজারের বেশি হজের টিকিট বিক্রি করে কালোবাজারের মাধ্যমে বিক্রি হয়েছে।

হজ যাত্রী পরিবহনে ৫ আগস্ট ফ্লাইট শুরু করবে সৌদি এরাবিয়ান এয়ারলাইন্স। তাদের ঢাকা থেকে জেদ্দায় হজ যাত্রী পরিবহন শেষ হবে ৬ সেপ্টেম্বর। আর জেদ্দা থেকে ঢাকায় হাজি ফিরিয়ে আনা শুরু হবে ১৭ সেপ্টেম্বর, শেষ হবে ১৮ অক্টোবর।

এবছর এক লাখ ‍এক হাজার ৭৫৮ জন বাংলাদেশি হজ করার সুযোগ পাচ্ছেন। এর মধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় যাচ্ছেন ১০ হাজার বাংলাদেশি। বাকি ৯১ হাজার ৭৫৮ জন যাচ্ছেন বেসরকারি ব্যবস্থাপনায়। বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ও সৌদি এরাবিয়ান এয়ারলাইন্স হজ যাত্রী পরিবহনের সুযোগ পেয়েছে।

Aviation News