জুরিখ বাংলা স্কুলে পাঠ্যবই বিতরণ

এই লেখাটি 191 বার পঠিত

Book-Distribution-bg20160712024647জুরিখ বাংলা স্কুলে প্রবাসী শিশুদের হাতে প্রথম বারের মতো পাঠ্যবই তুলে দিলেন সুইজারল্যান্ডে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত শামীম আহসান।

দেরিতে হলেও গত শনিবার বাংলা পাঠ্যবই হাতে নিয়ে বই উৎসব পালন করলো বাংলা স্কুল জুরিখ, সুইজারল্যান্ড। দীর্ঘদিনের প্রবাসী সন্তানদের এই দাবি পূরণে এগিয়ে আসলেন সুইজারল্যান্ডে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত শামীম আহসান।

তিনি জেনেভা থেকে জুরিখে এসে প্রথমবারের মতো বই বিতরণ করেন বাংলা স্কুল জুরিখের ছাত্র ছাত্রীদের মাঝে।

এ সময়ে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সুইজারল্যান্ডের জাতীয় সংসদের এমপি অ্যানজেলো বারিলে, বাংলাদেশের সাহায্য সংস্থা হেকসের কর্মকর্তা যিনি বাংলা স্কুল সহ বাংলাদেশের উন্নয়নে নেওয়া বিভিন্ন প্রজেক্টের সমন্বয়কারী মি. মাথিয়াজ হাউপ্ট, শ্রী চিন্ময় সেন্টারের নির্বাহী প্রনাম হর্লবাগ, বাংলাদেশ মিশনের ১ম সচিব মোহাম্মাদ হোসেন সরকার, প্রবাসী কমিউনিটি নেতাদের মধ্যে জহিরুল ইসলাম, কাজী আসাদ প্রমুখ।

স্কুলের শিক্ষিকা সুলতানা খান তানজিনের সঞ্চলনায় আয়োজিত সংক্ষিপ্ত আলোচনায় প্রবাসীদের বাংলা শিক্ষা এবং সংস্কৃতি বিকাশে সবাইকে দলমত নির্বিশেষে এগিয়ে আসতে বলেন রাষ্ট্রদূত। তিনি বাংলা স্কুলের সঙ্গে জুরিখের স্থানীয়দের এই সেতুবন্ধনের প্রশংসা করেন। আগামী জানুয়ারিতে যাতে প্রবাসের শিশুরা বই পেতে পারে সেজন্য সবাইকে আগে থেকেই ছাত্র ছাত্রীদের নামের তালিকা দূতাবাসগুলোতে পাঠিয়ে যোগাযোগ করতে বলেন তিনি। এ সময় বৈধপথে রেমিটেন্স পাঠানোর জন্য সব প্রবাসীর প্রতি আহ্বান জানান রাষ্ট্রদূত শামীম আহসান।

বাংলা স্কুল সহ বাংলাদেশের উন্নয়নে নেওয়া বিভিন্ন প্রজেক্টের সমন্বয়কারী মি. মাথিয়াজ হাউপ্ট বলেন, এক টুকরো বাংলাদেশ তার বুকে বাসা বেঁধে আছে। সব সময়ের জন্য তিনি বাংলা স্কুলের সঙ্গে আছেন এবং থাকবেন।

এ সময় দ্বৈত সংস্কৃতি বিকাশে সব সময়েই বাংলা স্কুল জুরিখের পাশে থাকার কথা ব্যক্ত করেন। তিনি শিশু এবং যুবকদের মাঝে, সংস্কৃতির বিকাশ ঘটিয়ে বিভিন্ন নেশা থেকে সরিয়ে রাখার জন্য বাংলা স্কুলের বিশেষ প্রয়োজনীয়তার কথা বলেন স্থানীয় জাতীয় পরিষদের সংসদ সদস্য অ্যানজেলো বারিলে।

Aviation News