৪১ দেশে ভিসামুক্ত যাতায়াতের সুবিধা নিয়ে পাসপোর্ট র‌্যাংকিংয়ে বাংলাদেশ

এই লেখাটি 347 বার পঠিত
passport

সারাবিশ্বের পাসপোর্টধারীদের মধ্যে কারা ভিসা ছাড়া কয়টি দেশে যাতায়াতের সুবিধা পান সেই র‌্যাংকিং প্রকাশ করে হেনলি পাসপোর্ট ইনডেক্স। ২০১৯ সালের তালিকায় বাংলাদেশ আছে ৯৭ নম্বরে। বাংলাদেশিরা ৪১টি দেশে ভিসা ছাড়াই কিংবা ভিসা-অন-অ্যারাইভাল সুবিধায় যাতায়াত করতে পারেন।

আমেরিকার মধ্যে কেবল বলিভিয়ায় ভিসা ছাড়া যাওয়ার সুযোগ রয়েছে বাংলাদেশিদের। এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশের জন্য ভিসামুক্ত সুবিধা দেয় ভুটান, ইন্দোনেশিয়া, মালদ্বীপ, নেপাল, শ্রীলঙ্কা ও পূর্ব-তিমুর।

তবে বাংলাদেশের পাসপোর্টধারীরা ভিসা ছাড়া আফ্রিকার বেশি দেশে ঢুকতে পারেন। এ তালিকায় আছে বেনিন, কেপ ভার্দে আইল্যান্ড, কমোরেস আইল্যান্ড, জিবুতি, গাম্বিয়া, গিনিয়া-বিসাউ, কেনিয়া, লেসোথো, মাদাগাস্কার, মরিটানিয়া, মোজাম্বিক, রুয়ান্ডা, সিশেলেস, সোমালিয়া, টোগো, উগান্ডা।

ক্যারিবীয় দ্বীপগুলোর মধ্যে বাহামাস, বারবাডোজ, ব্রিটিশ ভার্জিন আইল্যান্ড, ডমিনিকা, গ্রেনাডা, হাইতি, জ্যামাইকা, মন্টসেরাত, সেন্ট কিটস অ্যান্ড নেভিস, সেন্ট ভিনসেন্ট অ্যান্ড গ্রেনাডাইনস, ত্রিনিদাদ অ্যান্ড টোবাগোতে ভিসামুক্ত যাতায়াত করতে পারেন বাংলাদেশের নাগরিকরা।

প্রশান্ত মহাসাগরীয় দেশের মধ্যে কুক আইল্যান্ডস, ফিজি, মাইক্রোনেশিয়া, নুই, সামোয়া, টুভালু ও ভানুয়াতুতে বাংলাদেশের পাসপোর্টধারীরা ভিসা ছাড়া যেতে পারেন।

পৃথিবীর ১৮৫টি দেশে যেতে বাংলাদেশিদের পাসপোর্টে ভিসা থাকতে হয়। ২০১৯ সালের পাসপোর্ট র‌্যাংকিংয়ের শীর্ষস্থান পাওয়া জাপানে যেতেও বাংলাদেশের নাগরিকদের ভিসা প্রয়োজন। এবারের সবচেয়ে দুর্বল পাসপোর্টের দেশ আফগানিস্তানে ঢুকতেও বাংলাদেশিদের ভিসা লাগে।

ইন্টারন্যাশনাল এয়ার ট্রান্সপোর্ট অ্যাসোসিয়েশনের (আইএটিএ) বিশেষ তথ্যের ওপর ভিত্তি করে তৈরি হয় হেনলি পাসপোর্ট ইনডেক্স। বিশ্বের বৃহৎ ও সবচেয়ে সঠিক তথ্যাদি থাকে আইএটিএর কাছে।

Aviation News