নারায়ণগঞ্জে দরজা খুলতে দেরি হওয়ায় স্ত্রীকে ছুরিকাঘাত

এই লেখাটি 78 বার পঠিত
ch

নারায়ণগঞ্জে দরজা খুলতে দেরি হওয়ায় স্ত্রীকে ছুরিকাঘাত।

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় দরজা খুলতে দেরি হওয়ায় স্ত্রী নুরজাহান বেগমকে (৪৫) ছুরিকাঘাত করে মারাত্মক জখম করেছে মাদকাসক্ত স্বামী মোহর আলী। নুরজাহানের চিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে এলে আশঙ্কাজনক অবস্থায় স্বামী মোহর আলীই তাকে শহরের খানপুর ৩০০ শয্যা হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে যায়। পরে হাসপাতালের চিকিৎসক নুরজাহানকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণে করেন।

বৃহস্পতিবার (১০ জানুয়ারি) রাত ১১টায় ফতুল্লার দক্ষিণ সস্তাপুর এলাকার টিটু মিয়ার বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।
নুরজাহানের মা আনোয়ারা বেগম জানান, দরজা খুলতে দেরি হওয়ায় মোহর আলী ক্ষিপ্ত হয়ে ধারালো ছুরি দিয়ে নুরজাহানের পাজরে একবার আঘাত করে। এরপর আরেকটি আঘাত করলে সেটি হাত দিয়ে আটকানোর কারণে পাজরের অনেকটা ভেতরে ছুরি ঢুকে যায় এবং ডান হাতের মুঠের মাঝখানে অনেকটা কেটে যায়।

এলাকাবাসী জানায়, নুরজাহানের স্বামী মোহর আলী মাদকাসক্ত এবং চিহ্নিত চোর। প্রায়সময় তার স্ত্রীর সঙ্গে বাসায় ঝগড়া করে এবং ঘরের ভেতরেই মাদক সেবন করে। এ বিষয়ে বাড়ির অন্যান্য ভাড়াটিয়ারা বাড়িওয়ালার কাছে অভিযোগ করেও কোনো প্রতিকার পায়নি।

ফতুল্লা মডেল থানার এসআই দেবব্রুত দাস জানান, ঘটনাস্থলে গিয়ে কাউকে পাওয়া যায়নি। হাসপাতালে খোঁজ নেয়া হচ্ছে।

নারায়ণগঞ্জ ৩০০ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎক নাজনীন আক্তার জানান, রোগীর অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। রোগীর স্বামী তাকে নিয়ে গেছে।

Aviation News