জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জকে পেতে যুক্তরাষ্ট্রের হাতে সময় আছে ২ মাস

এই লেখাটি 68 বার পঠিত
জুলিয়ান-অ্যাসাঞ্জ

জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জকে পেতে যুক্তরাষ্ট্রের হাতে সময় আছে ২ মাস।

গ্রেপ্তার হওয়া উইকিলিকস প্রতিষ্ঠাতা জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জকে যুক্তরাষ্ট্রে হস্তান্তরের যৌক্তিকতা প্রমাণে যুক্তরাজ্যে একটি চূড়ান্ত ও বিস্তারিত ফৌজদারি মামলা করার জন্য মার্কিন কৌসুঁলিদের হাতে আছে ২ মাসেরও কম সময়। যুক্তরাষ্ট্রের এক সরকারি কর্মকর্তা একথা জানিয়েছেন।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এ কর্মকর্তা বলেন, অ্যাসাঞ্জকে যুক্তরাষ্ট্রে হস্তান্তরের জন্য কর্তৃপক্ষ যুক্তরাজ্যের কাছে আপাতত একটি গ্রেপ্তারি পরোয়ানা পাঠিয়েছে।

তবে তিনি জানান, পরোয়ানা পাঠানো হলেও অ্যাসাঞ্জকে ফেরাতে গত বৃহস্পতিবার থেকে ৬০ দিনের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রকে একটি আনুষ্ঠানিক অনুরোধ দাখিল করতে হবে এবং এতে অ্যাসাঞ্জকে যুক্তরাষ্ট্রে পাঠানো হলে তাকে কি কি আইনি অভিযোগের মুখোমুখি করা হবে সে বিষয়েও বিস্তারিত রূপরেখা উল্লেখ করতে হবে।

গত সাত বছর ধরে একুয়েডর দূতাবাসে আশ্রয় নিয়ে থাকা উইকিলিকস ওয়েবসাইটের প্রতিষ্ঠাতা জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জকে গত বৃহস্পতিবার গ্রেপ্তার করে ব্রিটিশ পুলিশ।

অস্ট্রেলিয়ার নাগরিক অ্যাসাঞ্জ ২০১০ সালে পেন্টাগন ও যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের লাখ লাখ সামরিক ও কূটনৈতিক গোপন নথি ফাঁস করে দিয়ে বিশ্বজুড়ে হৈ চৈ ফেলে দিয়েছিলেন।

ওই সব নথির মধ্যে মার্কিন বাহিনীর বিরুদ্ধে আফগান যুদ্ধসম্পর্কিত ৭৬ হাজার এবং ইরাক যুদ্ধ সম্পর্কিত আরো ৪০ হাজার নথি ছিল, যা যুক্তরাষ্ট্র সরকার ও পেন্টাগনকে চরম বেকায়দায় ফেলে দেয়।

এ নিয়ে আলোচনার মধ্যে সুইডেনে অ্যাসাঞ্জের বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়নের মামলা হয়। গ্রেপ্তার এড়াতে ২০১২ সালে অ্যাসাঞ্জ লন্ডনের একুয়েডর দূতাবাসে আশ্রয় নেন। তারপর থেকে তিনি সেখানেই ছিলেন। সুইডেনের সেই মামলা খারিজ হলেও ব্রিটিশ আইন ভাঙায় আবার গ্রেপ্তার হওয়ার ভয়ে অ্যাসাঞ্জ বের হতে পারছিলেন না।

গত বুধবার ইকুয়েডর কর্তৃপক্ষ তার আশ্রয় প্রত্যাহার করে নেওয়ার পর তিনি গ্রেপ্তার হন। যুক্তরাষ্ট্রের হাতে অ্যাসাঞ্জকে তুলে দেওয়ার বিষয়টি নিয়ে আগামী মাসে আদালতে শুনানি হওয়ার কথা রয়েছে।

Aviation News