আজ মধ্যরাত থেকে ধর্মঘটে যাচ্ছে জেট এয়ারওয়েজের ১১০০ পাইলট

এই লেখাটি 298 বার পঠিত
jet

আজ মধ্যরাত থেকে ধর্মঘটে যাচ্ছে জেট এয়ারওয়েজের ১১০০ পাইলট।

অনেক আন্দোলন করেও কোনও লাভ হয়নি। তাই এবার বকেয়া বেতনের দাবিতে রবিবার মাঝরাত থেকে ধর্মঘটে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিল জেট এয়ারওয়েজের পাইলটদের সংগঠন ন্যাশনাল এভিয়েটর্স গিল্ড (এনএজি)-র ১১০০ জন পাইলট। সূত্র মারফত এমনটাই জানা গিয়েছে। তাদের এই ঘোষণার পরেই পরিস্থিতি সামাল দিতে অসামরিক বিমান মন্ত্রক জরুরি বৈঠক ডেকেছে বলেও খবর। পাশাপাশি সোমবার গিল্ডের সদস্যরাও নিজেদের মধ্যে ফের বৈঠকে বসবেন বলে জানা গিয়েছে।

জেটের ওই পাইলটদের পাশাপাশি জানুয়ারি মাস থেকে বেতন পাননি ইঞ্জিনিয়ার ও ম্যানেজমেন্টের সিনিয়র কর্মীরাও। পাশাপাশি বাজারে অতিরিক্ত ধার থাকায় অন্যান্য বিভাগের কর্মীদের মার্চ মাসের বেতনও দেয়নি জেট। এপ্রসঙ্গে গিল্ডের তরফে জানানো হয়েছে, “জানুয়ারি মাস থেকে এখনও পর্যন্ত প্রায় সাড়ে তিন মাসের বেতন দেওয়া হয়নি আমাদের। এই বকেয়া টাকা কবে দেওয়া হবে তাও জানি না। এর ফলে বাধ্য হয়ে আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি যে ১৫ এপ্রিল মানে রবিবার মাঝরাত থেকে আর কোনও বিমান ওড়াব না। ১১০০ জন পাইলটই এই ধর্মঘটে শামিল হবেন।”

এনজিএ-র আরও দাবি, জেট এয়ারওয়েজের পূর্ণসময়ের ১৬০০ জন পাইলটের মধ্যে ১১০০ জনই তাদের সংস্থার সদস্য। জানুয়ারি থেকে তাঁরা কেউ বেতন পাচ্ছেন না। তাই মার্চে নিজেদের মধ্যে বৈঠকের পর তাঁরা ১ এপ্রিল থেকে বিমান চালানো বন্ধ করে দেবেন বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। যদি পরে ৩১ মার্চ ফের বৈঠক করে তাঁরা নতুন ম্যানেজমেন্টকে আরও একটু সময় দিতে চান। তাই ১ তারিখের বদলে ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত তা পিছিয়ে দেওয়া হয়।

গিল্ডের অভিযোগ, এর আগে পাইলটদের বকেয়া বেতন একসঙ্গে পুরো মিটিয়ে দেওয়া সম্ভব নয় বলে আগেই জানিয়েছিল অর্থ সংকটে পড়া জেট এয়ারওয়েজ কর্তৃপক্ষ। তবে ডিসেম্বর মাস পর্যন্ত বকেয়া বেতন মিটিয়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল তারা। কিন্তু, তারপর থেকে চারমাস কেটে গেলেও পাওয়া যায়নি বকেয়া বেতন। তাই বাধ্য হয়ে বিমান না ওড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন পাইলটরা।

যদিও, এই ধর্মঘটের ফলে তাদের পরিষেবায় কোনও প্রভাব পড়বে না বলে দাবি করা হয়েছে জেটের তরফে। উলটে তাদের দাবি, জেট এয়ারওয়েজে কর্মরত পাইলটদের মধ্যে ৬০ শতাংশ গিল্ডের সদস্য নয়। তাই তাদের ধর্মঘটের ফলে কোনও অসুবিধা হবে না। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, জেট এয়ারওয়েজকে বাঁচাতে ১,৫০০ কোটি টাকা সাহায্য করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল স্টেট ব্যাংকের নেতৃত্বাধীন ব্যাংকগুলির কনসর্টিয়াম। গতমাসে তা অনুমোদনও পেয়েছে। তবে এর জন্য দায়িত্ব ছাড়তে হয়েছে প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান জেট নরেশ নামে খ্যাত নরেশ গোয়েলকে।

Aviation News